Alexa সেই ফাতেমার ‘খুনির’ সিসি ফুটেজ প্রকাশ, শনাক্তে পুরস্কার ঘোষণা

ঢাকা, সোমবার   ২০ জানুয়ারি ২০২০,   মাঘ ৬ ১৪২৬,   ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

সেই ফাতেমার ‘খুনির’ সিসি ফুটেজ প্রকাশ, শনাক্তে পুরস্কার ঘোষণা

ফরিদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:০১ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ফরিদপুরের চাঞ্চল্যকর বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী ফাতেমা হত্যার সন্দেহভাজন খুনির সিসি ফুটেজ প্রকাশ করা হয়েছে। ফুটেজে লাল গোল চিহ্নিত ব্যক্তিকে শনাক্ত করলে শনাক্তকারীকে পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।  

রোববার রাত ৮টায় জেলা পুলিশের ফেইসবুক অফিসিয়াল পেইজে ১১ সেকেন্ড ও ১৯ সেকেন্ডের দুটি ফুটেজ প্রকাশ করা হয়। 

ডিস্ট্রিস্ট পুলিশ, ফরিদপুর নামের ফেসবুক পেইজে প্রকাশিত ওই সিসি ক্যামেরা ফুটেজে দেখা গেছে, শহরের রাজেন্দ্র কলেজের মাঠে ব্রান্ডিং মেলা থেকে বাম হাত ধরে ফাতেমাকে বাইরে নিয়ে যাচ্ছে সন্দেহভাজন ওই খুনি। 

প্রথম ফুটেজটি বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা ০১ মিনিটের। ১৯ সেকেন্ডের ওই ফুটেজে দেখা যায়, সন্দেহভাজন ওই খুনি মেলার শিশু কর্নারের দিকে একটি স্টলের পেছন দিকে বের হয়ে বাঁশের খুঁটির কাছে এসে উঁকিঝুঁকি দিচ্ছে। সেখানে তার গতিবিধিই ছিলো সন্দেহজনক। 

এরপর ১১ সেকেন্ডের আরেকটি ফুটেজে দেখা যায়, ফাতেমার হাত ধরে মেলার বাইরে নিয়ে যাচ্ছে সন্দেহভাজন ওই খুনি। ফুটেজে সন্দেহভাজন খুনির বয়স আনুমানিক ২৫ থেকে ৩০ বছর। তার পরনে অফ হোয়াইট রঙের কালো স্টেপের ফুলহাতা জামা ও একটি ফেড করা জিন্স প্যান্ট ছিল। আর ফাতেমার পরনে ছিলো কমলা রঙের একটি পায়জামা। এ পায়জামাটি পুলিশ ফাতেমার মরদেহের সঙ্গে উদ্ধার করেছে। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জাকির হোসেন বলেন, ভিডিও ফুটেজটি সংগ্রহ করে সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছি। কিন্তু অপরাধীকে শনাক্ত করতে পারেনি। এজন্য এটি ফেইসবুকে ছাড়া হয়েছে। 

তিনি বলেন, আমার চাকরি জীবনে এমন মর্মান্তিক ঘটনা দেখিনি। মেয়েটি বুদ্ধি ও বাক প্রতিবন্ধী। সে একটু খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাঁটতো। সে খুবই মিশুক ছিলো। এলাকার সবার সঙ্গে মিলেমিশে থাকতো। কেউ ডাক দিলে চলে যেতো। 

ফেসবুকে সিসি টিভি ফুটেজ ছাড়ার প্রসঙ্গে এসআই জাকির হোসেন বলেন, যদি কেউ সন্দেহভাজন ওই খুনির পরিচয় দিতে পারেন তাহলে শনাক্তকারীকে ব্যক্তিগতভাবে পুরস্কৃত করব।

ফরিদপুরের এসপি আলিমুজ্জামান জানান, সিসি টিভির ফুটেজ ফাতেমার মা বাবাকে দেখানো হয়েছে। কিন্তু তারা সন্দেহভাজন ওই খুনিকে চিনতে পারেননি। তিনদিন আগে সন্দেহভাজন খুনিকে একটি দোকানের সামনে দাঁড়াতে দেখেছেন বলে ফাতেমার বাবা জানিয়েছেন। ওই দোকান থেকে সে সিগারেট কিনে বলেও জানান তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ