নিম্ন রক্তচাপ সমাধানে লবণ পানি

ঢাকা, সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০,   চৈত্র ১৬ ১৪২৬,   ০৫ শা'বান ১৪৪১

Akash

নিম্ন রক্তচাপ সমাধানে লবণ পানি

কানিছ সুলতানা কেয়া ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৫০ ৩০ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৪:৩০ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

উচ্চ রক্তচাপের মতো নিম্ন রক্তচাপও একটি সাধারণ সমস্যা। রক্তচাপ নিচের রিডিং ৬০ বা তার কম হলে সেটাকে নিম্ন রক্তচাপ বা লো ব্লাড প্রেসার ধরা হয়। আর যদি নিচেরটি ৬০ এর উপরে থাকে, উপরেরটি ১০০ বা তার চেয়ে কমে যায় তাহলে সেটাকেও নিম্ন রক্তচাপ ধরা হয়। 

নিম্ন রক্তচাপ বা হাইপোটেনশনে হৃৎপিণ্ড, মস্তিষ্ক এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গগুলোর রক্তের প্রবাহ কম হয়। এতে আপনার সবসময় অস্থির লাগা সহ বমি ভাব এবং বিভ্রান্ত বোধ হতে পারে।

কিছু ক্ষেত্রে নিম্ন রক্তচাপ স্বাভাবিক হতে পারে এবং কোনো লক্ষণ দেখাতে পারে না। তবে যখন নিম্নচাপের লক্ষণগুলো দেখা দেয় তখন আপনার অবশ্যই পরিস্থিতি হালকাভাবে নেয়া উচিত নয়। কারণ অবহেলা থেকে হতে পারে  স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক এবং কিডনির নানা জটিলতা।

কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি অনুসরণ করলে এবং বিশেষ কিছু খাবার খেলে নিম্ন রক্তচাপ সমস্যার থেকে নিস্তার পাওয়া যায়। আসুন জেনে নেয়া যাক নিম্ন রক্তচাপ সমাধানের ৫টি প্রতিকার।

(১) লবণ পানি:

আপনার রক্তচাপ কম হলে তা স্থিতিশীল করতে সহায়তা করবে লবণ পানি

শরীরের সঠিকভাবে কাজ করতে বা  তরল স্তরের ভারসাম্য বজায় রাখতে লবণ প্রয়োজনীয়। যারা কম রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছেন বা যখন বমি ভাব অনুভব করতে শুরু করেন তখন লবণ পানি পান করুন। এক গ্লাস পানিতে ১ থেকে ২ চা চামচ লবণ ভালোভাবে মিশিয়ে পান করুন। এটি আপনার রক্তচাপ কম হলে তা স্থিতিশীল করতে সহায়তা করবে।  

(২) তুলসি পাতা:

তুলসি পাতা আপনার রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করবে

নিম্ন রক্তচাপের লক্ষণ দেখা দিলে ৪ থেকে ৫টি তুলসি পাতা চিবিয়ে খেয়ে ফেলুন। তুলসি পাতায় উচ্চ মাত্রায় পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ভিটামিন সি রয়েছে। যা আপনার রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়াও এটিতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্যও রয়েছে। যা কোলেস্টেরলের মাত্রা পরিচালনা করতে সহায়তা করে।

(৩) রোজমেরি অয়েল:

রোজমেরি নিম্ন রক্তচাপের চিকিৎসায় খুবই কার্যকরী

রোজমেরি এসেনশিয়াল অয়েলে রয়েছে অসংখ্য স্বাস্থ্য উপকারিতা। এটিতে কর্পূর রয়েছে, যা নিম্ন রক্তচাপের চিকিৎসায় খুবই কার্যকরী। এটি শ্বসনতন্ত্রকে উদ্দীপিত করে এবং রক্ত সঞ্চালনকে উৎসাহ দেয়। হাতের  তালুতে কয়েক ফোঁটা রোজমেরি অয়েল ঘষে নিন। এতে করে কম রক্তচাপের সমস্যা থেকে তাৎক্ষণিক মুক্তি পাবেন।

কফি:

কফি আপনার হার্ট বিটের হার এবং রক্তচাপের স্তরকে বাড়িয়ে তুলতে পারে

কফিতে রয়েছে উচ্চ মাত্রার ক্যাফেইন। কফি কিংবা অন্য যেকোনো ক্যাফেইনযুক্ত পানীয় নিম্ন রক্তচাপের বিরুদ্ধে লড়াই করে। যা আপনার হার্ট বিটের হার বাড়িয়ে তুলতে এবং আপনার রক্তচাপের স্তরকে বাড়িয়ে তুলতে পারে। আপনার নিম্ন রক্তচাপের লক্ষণ দেখা দিলে এক মগ কফি পান করুন। তবে কফি অল্প সময়ের জন্য আপনার রক্তচাপকে স্থিতিশীল করতে সহায়তা করে।

কিসমিস:

শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে দুধের সঙ্গে কিসমিস সিদ্ধ করে পান করতে পারেন

কিসমিস হলো একটি প্রাচীন ঘরোয়া  উপায়। যাতে রয়েছে নানা স্বাস্থ্যগুণ। এটি শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে সহায়তা করে। যারা নিম্ন রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছেন তারা এটি নিয়মিত খেতে পারেন। কয়েকটি কিসমিস পানিতে সারারাত ভিজিয়ে রেখে পরদিন দুধের সঙ্গে সিদ্ধ করে পান করতে পারেন।

গাজরের রস:

গাজরের রস রক্তচাপ বাড়াতে সাহায্য করবে

সকালে খালি পেটে এক গ্লাস গাজরের রস খান। এতে সামান্য মধু মিশিয়ে নিতে পারেন। এটি দিনে দুইবার খান। এটি রক্তচাপ বাড়াতে সাহায্য করবে।

সূত্র: টাইমসঅবইন্ডিয়া

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে/