Alexa ড্যান্স বারের নামে নারী পাচার, আটক ৮

ঢাকা, বুধবার   ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ৬ ১৪২৬,   ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

Akash

ড্যান্স বারের নামে নারী পাচার, আটক ৮

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৫৫ ২৭ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ড্যান্স বারের নামে নারী পাচার করার অভিযোগে আট যুবককে আটক করেছে র‌্যাব। 

সোমবার দুপুরে জেলার সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগরে র‍্যাব ১১ এর সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‍্যাব এর নতুন কমান্ডিং অফিসার (সিও) লেফটেন্যান্ট কর্নেল ইমরান উল্লাহ সরকার।

এর আগে ঢাকার কামরাঙ্গীরচর, কেরানীগঞ্জ ও মুগদা এলাকা হতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ সময় বিপুল পরিমাণ পাসপোর্ট ও বিমান টিকেটসহ ছয় তরুণী উদ্ধার করা হয়।

নারী পাচারকারী চক্রের আটক সদস্যরা হলেন, লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জের শাহাবুদ্দিন, নোয়াখালীর শ্যামবাগের হৃদয় আহম্মেদ, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের মামুন, মাদারীপুরের কালকিনি এলাকার স্বপন হোসেন, চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের শিপন, মুন্সিগঞ্জের লৌহজং এলাকার রিজভী হোসেন অপু, পটুয়াখালীর বাউফলের মুসা ওরফে জীবন ও চাঁদপুরের মতলবের শিল্পী আক্তার। তাদের থেকে ৩৯টি পাসপোর্ট, ৬৬টি পাসপোর্টের ফটোকপি, ১৮টি বিমান টিকেটের ফটোকপি, ৩৬টি ভিসার ফটোকপি, একটি সিপিইউ, ১৯টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। এ সময় তাদের হেফাজত হতে দুই ভিকটিম তরুণীকে উদ্ধার করা হয়।

সিও ইমরান জানান, আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, তারা একটি সংঘবদ্ধ আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য এবং তারা ১৫-২৫ বছর বয়সী সুন্দরী তরুণীদের বিদেশে উচ্চ বেতনে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে বারে ড্যান্স ও অসামাজিক কার্যকলাপের উদ্দেশ্যে পাচার করেন। উক্ত সিন্ডিকেটের সদস্যরা পাচার নারীদের হোটেলে নিয়ে গৃহবন্দী করে রাখতেন। প্রাথমিক অবস্থায় তরুণীরা আসামাজিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হতে রাজি না হলে বিভিন্ন নেশাজাতীয় দ্রব্য প্রয়োগ করা হতো।

তিনি আরো জানান, এর আগে ২৩ নভেম্বর রূপগঞ্জের তারাব এলাকায় অভিযান চালিয়ে চার ভিকটিম তরুণীকে উদ্ধার করা হয় এবং সেখান থেকে ছয়জনকে আটক করা হয়। পরে ২৬ জানুয়ারি ঢাকার কামরাঙ্গীরচর, কেরানীগঞ্জ ও মুগদা এলাকায় অভিযান চালিয়ে আট পাচারকারীকে আটক করে র‍্যাব। সেখান থেকেও দুই ভিকটিম তরুণীকে উদ্ধার করা হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম