কুড়িগ্রাম সীমান্তে বন্য হাতির তাণ্ডব

ঢাকা, সোমবার   ০১ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭,   ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

কুড়িগ্রাম সীমান্তে বন্য হাতির তাণ্ডব

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:১২ ২০ মে ২০২০   আপডেট: ২২:১৭ ২০ মে ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

কুড়িগ্রামের রৌমারী সীমান্তে ভারতীয় বন্য হাতি ফের তাণ্ডব চালিয়েছে। এতে স্থানীয় কৃষকের প্রায় ২০ একর জমির ফসল নষ্ট করে ফেলেছে।

হাতির দল বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আসার প্রায় এক ঘণ্টা পর সীমান্তের কৃষকরা জানতে পারে। পরে কৃষকরা ক্ষেতের ধান রক্ষার্থে হাতি তাড়াতে চেষ্টা করেন। প্রায় তিন ঘণ্টা ঢাকঢোল পিটিয়ে ও আগুনের কুন্ডলি জ্বালিয়ে হাতি তাড়াতে সক্ষম হয়।

এরইমধ্যে রাজীবপুর উপজেলার মিয়াপাড়া সীমান্ত থেকে শুরু করে রৌমারী উপজেলার আলগার চর সীমান্ত পর্যন্ত বন্য হাতি ভয়াবহ তাণ্ডব চালায়। ফলে সীমান্ত এলাকার পাকা বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। 

হাতির দল মিয়াপাড়া, বাউল পাড়া, জালচিড়া পাড়া ও বালিয়ামারী, লাঠিয়াল ডাঙ্গা, বাগান বাড়ী, বংশিরভিটা, আলগারচর, উত্তর আলগারচর, খেওয়ারচর, বকবান্দা, ঝাউবাড়ী, চুলিয়ারচর, বারবান্দাসহ সীমান্তবর্তী এলাকার এবং ভারতের বলদাং গিরি, কালাইয়েরচর, শটিমারী, ভাটির গাও, শদুরটিলা, কারিপারাসহ এলাকার উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি করেছে।

বর্তমান বন্য হাতির দলটি সীমান্তের নোম্যান্সল্যান্ডে অবস্থান করছে। এতে ভারত ও বাংলাদেশের সীমান্তবাসীরা তাদের উঠতি ফসল নিয়ে হুমকির মুখে পড়েছে। যে কোনো সময় আবারো ফসলি জমিতে হাতির দল তাণ্ডব চালাতে পারে এজন্য রাত জেগে পাহাড়া দিতে হচ্ছে এলাকাবাসীর।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আলগারচর গ্রামের রবিউল ইসলাম, বংশির ভিটা গ্রামের ফরজ আলী ও শহিদুল ইসলাম বলেন, ভারত থেকে আসা বন্য হাতির তাণ্ডবে ফসল নিয়ে বিপাকে আছি। এর আগে বন্য হাতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি করেছে। হাতির দল এখন সীমান্তে অবস্থান করায় ফসলের ক্ষতির আশঙ্কা করছি।  

বুধবার গভীর রাতে ভারতের কাঁটাতারের বেড়া পেরিয়ে আর্ন্তজাতিক সীমানা পিলার ১০৭১/৭২ এর উত্তর পাশ দিয়ে ৫০ থেকে ৬০টি বন্য হাতির একটি দল ভারতের কাঁটাতারের বেড়া অতিক্রম করে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে। 

এ সময় ১০৭১ সীমানা পিলারের আশপাশের ধান ক্ষেতের ওপর তাণ্ডব চালিয়ে ব্যাপক ক্ষতি করে। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে কৃষকের পাকা-কাঁচা প্রায় ২০ একর জমির ধান নষ্ট করে।

এ  সময় বাংলাদেশ ও ভারতের কৃষকরা তাদের আধাপাকা বোরো ধান রক্ষার্থে দু’দেশের সীমান্ত থেকে ঢাক-ঢোল পিটিয়ে, আগুন জালিয়ে, পটকা ফাটিয়ে ও নিজেদের শ্যালো ইঞ্জিন চালু করে বন্য হাতি তাড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছেন।
 
এ ব্যাপারে সীমান্তে দায়িত্বরত বালিয়ামারী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মিজানুর রহমান জানান. ভারতীয় বন্য হাতি দল সীমান্ত এলাকার কৃষকের ক্ষেতের ধান ক্ষতি করে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে