পঙ্গপাল তাড়াতে এবার ক্ষেতে বাজানো হলো ডিজে মিউজিক!

ঢাকা, শনিবার   ০৪ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ২০ ১৪২৭,   ১২ জ্বিলকদ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

পঙ্গপাল তাড়াতে এবার ক্ষেতে বাজানো হলো ডিজে মিউজিক!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:১৫ ২৯ মে ২০২০   আপডেট: ১৪:৩৮ ২৯ মে ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ভারতজুড়ে চলছে লকডাউন। এরইমধ্যে দেশটির মধ্য ও পশ্চিমাঞ্চলের মধ্য প্রদেশ, উত্তর প্রদেশ, রাজস্থান, পাঞ্জাব ও হরিয়ানায় পঙ্গপালের আক্রমণ শুরু হয়েছে। ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল এসব রাজ্যের বহু গ্রাম ও শহরে ঢুকে পড়েছে, হানা দিয়েছে ফসলের ক্ষেতে।

প্রথমে বিষয়টিতে সেভাবে আলোকপাত না করলেও রাক্ষুসে পোকার আক্রমণ রুখতে দিন দুয়েক আগে নড়েচড়ে বসে কেন্দ্র। চাষিদের দুর্দশা ঘোচাতে কয়েকটি পদক্ষেপ ঘোষণা করা হয়। তবে সরকারি পদক্ষেপের আশায় বসে না থেকে পঙ্গপাল তাড়াতে নিজেরাই উদ্যোগী চাষিরা। কিন্তু কীটনাশক প্রয়োগ করে নয়, একেবারে অন্য পন্থায় পঙ্গপালকে দূর করার চেষ্টা করলেন তারা। খেতে বাজানো হলো ডিজে মিউজিক!

শুনে খানিকটা অবাকই হতে হয়। তবে চাষিদের মতে এতে পঙ্গপালের দল খেতের তুলনামূলক কম ক্ষতি করবে। ঝাঁসির এক পুলিশকর্মী রাহুল শ্রীবাস্তব সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন।

যেখানে দেখা যাচ্ছে, খেতের মাঝে একটি গাড়িতে ডিজে সিস্টেম বসানো রয়েছে। সেখান থেকে জোরে ভেসে আসছে ডিজে মিউজিক। পুলিশকর্মী লিখেছেন, ডিজের গানে শুধু মানুষ নাচেই না, পঙ্গপাল তাড়াতেও তা কাজে লাগে। আসলে অতিরিক্ত শব্দেই জব্দ হয় পঙ্গপাল। 

ভিডিওটি এখন নেটদুনিয়ায় ভাইরাল। তবে এই প্রথম নয়, এর আগে একই কারণে মুখে বিভিন্ন ধরনের আওয়াজ করে, থালা বাজিয়ে পঙ্গপাল তাড়ানোর চেষ্টা করেছেন বিভিন্ন প্রান্তের চাষিরা।

পঙ্গপালের দল এরইমধ্যেই ৫০ হাজার হেক্টর খেতের জমি নষ্ট করেছে । কোটি কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে। মাথায় হাত পড়েছে চাষিদের। আগে থেকে এই পঙ্গপাল হানার সতর্কতা থাকলেও সেভাবে কোনো পদক্ষেপই গ্রহষ করেনি কেন্দ্র। তবে কৃষকরা বিপুল ক্ষতির মুখে পড়ার পর ঘুম ভেঙেছে কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রণালয়ের।
 
কৃষি মন্ত্রণালয়ের সূত্রের জানা গেছে, দেশটির পাঁচ রাজ্যে মোট ২০০টি অস্থায়ী পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রক দফতর তৈরি করা হয়েছে। জেলা প্রশাসন এবং রাজ্য সরকারের সঙ্গে সমন্বয় সাধন করে পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রণের কাজ করে চলেছে এই দফতরগুলোর। এখন পর্যন্ত রাজস্তানের ২১টি, মধ্যপ্রদেশের ১৮টি, পাঞ্জাবের একটি এবং গুজরাটের ২টি জেলায় পঙ্গপালের হানা নিয়ন্ত্রণে আনা গিয়েছে। কীটনাশক ছড়ানোর জন্য দমকলের ৮৯টি ইঞ্জিন, ১২০টি পর্যবেক্ষক যান, ৪৭টি পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রক যান, এবং ৮১০টি ট্রাক্টর নামানো হয়েছে। ব্রিটেন থেকে আরও ৬০টি অত্যাধুনিক স্প্রে করার যন্ত্র আমদানি করা হচ্ছে। অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকও কৃষিমন্ত্রককে তাদের পরিকাঠামো ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে।

ভিডিওটি দেখুন:

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ/এস/মাহাদী