দুলছে ৪০ টনের ৪২টি বিমান, এর আগে এমন দৃশ্য দেখেনি বিমানবন্দর

ঢাকা, রোববার   ০৯ মে ২০২১,   বৈশাখ ২৭ ১৪২৮,   ২৬ রমজান ১৪৪২

দুলছে ৪০ টনের ৪২টি বিমান, এর আগে এমন দৃশ্য দেখেনি বিমানবন্দর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৪০ ২১ মে ২০২০   আপডেট: ০২:০৪ ২৫ জুন ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে এক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার সাক্ষী হয়েছে পুরো কলকাতা শহর। ঘূর্ণিঝড়ের দমকা হাওয়ায় বিমানবন্দরে দাঁড়িয়ে থাকা বিমানগুলো উল্টে যাওয়ার অবস্থা। পরদিন সকালে দেখা গেল প্রায় হাঁটুজল অবস্থায় মাথা উঁচু করে আছে বিমানগুলো।

এয়ারপোর্টে অন্তত ৪২টি বিমান ছিল। একেকটির ওজন প্রায় ৪০ টন করে। ১৩০ কিমি প্রতি ঘণ্টা গতিবেগের ধাক্কায় সেগুলো রীতিমত দুলছিলো।

১০ টি ছোট ছোট বিমানকে আগেই কলকাতা থেকে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে অন্য জায়গায়। কর্মীদের আশঙ্কা ওই বিমানগুলো থাকলে সেগুলো তো উল্টে যেতই, অন্য বিমানেরও ব্যাপক ক্ষতি হত। অনেকেই ভেবেছিলেন ঝড়ের আঘাত ভিতরে পৌঁছাবে না।

যদিও বিমানের সামনের ও পিছনের দিকে আটকানো ছিলো, তবুও বিমানগুলো যেভাবে দুলছিলো তা দেখে ভয় পেয়ে যান এয়ারপোর্টের কর্মীরা।

টার্মিনালের সব দরজা বন্ধ করে দেয়া হয়েছিলো। কিন্তু মোটা কাঁচে সজোরে ধাক্কা মারতে থাকে ঝড়ের দমকা বাতাস। জরুরী ডিউটিতে থাকা কর্মীরা রীতিমতো ভয় পেয়ে যান। বিমানবন্দরের ছাদে লাগানো লম্বা স্টিলের শিটগুলো যেন ছিঁড়ে যাওয়ার অবস্থা হয়।

তবে বিমানবন্দরে থাকা বিজ্ঞাপনের বোর্ডগুলো আগেই খুলে নেয়া হয়েছিলো। সেগুলো ভেঙে পড়লে আরো অনেক বেশি ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা ছিলো।

লকডাউনের জন্য বিমান আপাতত বন্ধ আছে। কার্গো বিমানও বন্ধ রাখা হয়েছে। জানা গেছে, শুক্রবারের আগে কলকাতা বিমানবন্দর থেকে কোনো বিমান উড়তে পারবে না।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ