Alexa ‘বাংলাদেশ আমার দ্বিতীয় বাড়ি’

ঢাকা, শুক্রবার   ১৮ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ৩ ১৪২৬,   ১৯ সফর ১৪৪১

Akash

‘বাংলাদেশ আমার দ্বিতীয় বাড়ি’

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:২৬ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৩:৪৪ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। ফাইল ছবি

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। ফাইল ছবি

এক দুই করে বহু বছর জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের সঙ্গে কাটিয়েছেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। দলের নানা উত্থান-পতন নিজ চক্ষে দেখেছেন। অসংখ্য ম্যাচে একাই মোড় ঘুরিয়েছেন। তেমনি দারুণ এক ইনিংস খেলে শুক্রবারও দলকে এনে দিয়েছেন সহজ এক জয়। 

তাই বলা যায়, বিদায়টা বীরের বেশেই নিলেন। দলের জয়ে স্মরণীয় করে রাখলেন নিজেকে। আর বিদায়বেলায় মাসাকাদজাকে দুই দলই ব্যাট উঁচিয়ে দিল গার্ড অব অনার। এর চেয়ে রাজসিক বিদায় আর কী-ই বা হতে পারে। এমন বিদায় মাসাকাদজা কী কখনো ভেবেছিল!

এদিকে বিদায়ের বিষাদ ছাপিয়ে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের সংবাদ সম্মেলনে হাসিমাখা মুখ নিয়ে হাজির হয়ছিলেন মাসাকাদজা। বললেন, বাংলাদেশ আমার দ্বিতীয় বাড়ি এবং আমার হৃদয়ে বিশেষ জায়গা দখল করে আছে। আমি এখানে অনেক মানুষের সঙ্গে পরিচিত হয়েছি এবং অনেক বন্ধু পেয়েছি। আমি এখান থেকে অনেক কিছু শিখেছি। 

মাসাকাদজা বিদায়ের অনুভূতি প্রকাশে মৃদু হেসে জানালেন, কষ্ট হলেও কোনো অপূর্ণতা নেই। বরং ১৮ বছরে যা অর্জন করেছেন তা নিয়ে বেশ সন্তুষ্ট তিনি। এখন নতুনদের দায়িত্ব বুঝে নেয়ার সময়। নিজে সরে দাঁড়িয়ে সেই পথ পরিষ্কার করে দিলেন। 

শেষ ম্যাচে বিশেষ জার্সি পরে খেলতে নেমেছিলেন মাসাকাদজা। পেলেন বিসিবি’র কাছ থেকে বিশেষ সম্মাননা আর স্মারক উপহার। এতে একটি ছিল ফ্রেমে বাঁধানো তার ক্যারিয়ারের স্মরণীয় কিছু মুহূর্ত। ফ্রেমে লেখা ‘থ্যাংকস মুধারা হ্যামি’ (জিম্বাবুয়ের ভাষায় এর অর্থ ‘পরিণত’)। এটা তার ডাক নাম, যা ক্যারিয়ারের শুরুতে পেয়েছিলেন।

উপহার হাতে নিয়েই সংবাদ সম্মেলনে হাজির হলেন মাসাকাদজা। এরপর বিদায় নিয়ে কথা বলার এক পর্যায়ে বাংলাদেশ নিয়ে নিজের ভালোবাসার কথাও বললেন মাসাকাদজা। জানালেন, বাংলাদেশ তার হৃদয়ে বিশেষ জায়গা দখল করে আছে। এই দেশের ক্রিকেটের সঙ্গে মাসাকাদজার সম্পর্ক অনেক পুরনো। খেলেছেন এদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে। বহুবার জাতীয় দলের হয়ে সফরও করেছেন। 

বাংলাদেশ নিয়ে মাসাকাদজার আবেগের বিশেষ কারণও রয়েছে। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডকে আইসিসি বরখাস্ত করার পর বাংলাদেশ তাদের বিপদে পাশে দাঁড়ায়। ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশ নেয়ার আমন্ত্রণ জানায়। ফলে ছন্নছাড়া জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট আশার আলোর পায়। আর মাসাকাদজাও পেয়েছেন মাঠ থেকেই বিদায় নেয়ার সুযোগ।

আফগানিস্তানের সঙ্গে বিদায়ী ম্যাচে রেকর্ডও গড়েছেন মাসাকাদজা। ৭ উইকেটে জয় পাওয়া ম্যাচে ব্যাট হাতে ৪২ বলে ৭১ রান করেছেন। ঠাঁই পেলেন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে বিদায়ী ম্যাচে কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রান করার রেকর্ডের। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর