Alexa ২০ মিনিটে সদরঘাট থেকে পতেঙ্গা

ঢাকা, শনিবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২০,   মাঘ ১১ ১৪২৬,   ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

২০ মিনিটে সদরঘাট থেকে পতেঙ্গা

ভ্রমণ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:৪৬ ২৪ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১২:৫০ ২৪ নভেম্বর ২০১৯

ওয়াটার বাস

ওয়াটার বাস

চট্টগ্রাম নগরীতে যানজটে নাকাল নগরবাসী। অনেক সময় নগরী থেকে সড়কপথে শাহ আমানত বিমাবন্দর যেতে প্রায়ই সময় লাগে এক থেকে দেড় ঘণ্টা। সময়মতো পৌঁছতে না পেরে ফ্লাইট মিসের ঘটনাও ঘটে। এমন ধকল থেকে স্বস্তি দিতে চালু হচ্ছে ওয়াটার বাস সার্ভিস। এতে মাত্র ২০ মিনিটে নগরীর সদরঘাট থেকে পতেঙ্গা ১৫ নম্বর ঘাটে যাওয়া যাবে।

শনিবার বিকেলে ওয়াটারবাসের পরীক্ষামূলক যাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এদিন চট্টগ্রামের সদরঘাট থেকে ৩টা ২৮মিনিটে যাত্রা করেছিল শীতাতপনিয়ন্ত্রিত ওয়াটারবাসটি। এরপর ৫০ কিলোমিটার ছাড়িয়ে যায় মাত্র ২০ মিনিটে। যাত্রায় কোনো ঝাঁকুনি ছিল না।

ওয়াটারবাস পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু আগে ওয়াটারবাস পরিচালনাকারী এসএস ট্রেডিংয়ের উপদেষ্টা সাখাওয়াত হোসেন বলেন, প্রতিদিন শহর থেকে বিমানবন্দরে পাঁচ হাজার যাত্রী সড়কপথে যায়। যানজটের কারণে তাদের নির্ধারিত সময়ের চেয়ে তিন-চার ঘণ্টা আগেই রওয়ানা হতে হয়। তবে ওয়াটারবাসে সদরঘাট থেকে নদীপথ হয়ে বিমানবন্দরে পৌঁছাতে সময় লাগবে সর্বোচ্চ ৩০ মিনিট।

ওয়াটার বাসের ভেতরের অংশ

নারায়ণগঞ্জের একটি ডক ইয়ার্ডে ফাইবার গ্লাস দিয়ে তৈরি হয়েছে হংকং থেকে আনা নকশায় দু’টি ৩৭ ফুট লম্বা, ১১ ফুট প্রশস্ত ও ১ ফুট ড্রাফটের ওয়াটার বাস। প্রতিটি ওয়াটারবাসে দুইটি ২০০ হর্সপাওয়ারের জাপানি ইয়ামাহা ইঞ্জিন। রয়েছে জাপানি নেভিগেশনাল যন্ত্রপাতি, ওয়াইফাই সুবিধা, সোলার সিস্টেম, এয়ার কন্ডিশন। অপেক্ষা শুধু আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের। আশা করা হচ্ছে, এ সপ্তাহের মধ্যে সার্ভিসটি চালু হবে।

প্রাথমিকভাবে কর্তৃপক্ষ যাত্রীপ্রতি ভাড়া নির্ধারণ করেছে চারশ’ টাকা। মূলত বিমানবন্দরের আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ গন্তব্যের যাত্রীদের যাতে যানজটের কারণে ফ্লাইট মিস না হয় সে লক্ষ্যে এ ওয়াটার বাস চালু করছেন তারা। এ ভাড়ার মধ্যেই যাত্রীদের লাগেজ ওয়াটার বাসে তোলা, নামানো, বিমানবন্দরে শাটল বাসে তোলা সব সেবা অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

বিমানবন্দরমুখী চট্টগ্রাম বন্দর সড়কে যানজট কমাতে এই নৌপথে যাত্রী পরিবহন সেবা চালুর উদ্যোগ নেয় চট্টগ্রাম বন্দর। বন্দর কর্তৃপক্ষ সদরঘাট ও পতেঙ্গা দুই স্টেশনে টার্মিনাল ও জেটি সুবিধা তৈরি করেছে। যাত্রী পরিবহন সেবা পরিচালনার জন্য নিয়োগ দিয়েছে চিটাগাং ড্রাই ডক লিমিটেড (সিডিডিএল) ও এসএস ট্রেডিংকে। তারা বন্দরকে বার্ষিক ভাড়া দিয়ে এই নৌপথে যাত্রী পরিবহন করবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে/টিআরএইচ