Alexa যৌন উত্তেজক বড়ি না খাওয়ায় গৃহবধূকে সিগারেটের ছ্যাঁকা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯,   আশ্বিন ৩০ ১৪২৬,   ১৫ সফর ১৪৪১

Akash

যৌন উত্তেজক বড়ি না খাওয়ায় গৃহবধূকে সিগারেটের ছ্যাঁকা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:২৩ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১২:৩৩ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

গাজীপুরে যৌন উত্তেজক বড়ি সেবন না করায় এক গৃহবধূর মুখ বেঁধে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়েছে স্বামী সবুজ হোসেন।

বুধবার রাতে বিরোধের এক পর্যায়ে স্ত্রীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে সিগারেটের ছ্যাঁকা দেয় ও মারধর করা হয়। নির্যাতিতা স্ত্রীর বাড়ি ভাণ্ডারবাড়ি ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর-দোয়াতপাড়া গ্রামে।

এদিকে ঘটনা জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার রাতে ওই স্ত্রীকে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে তার স্বজনরা। এর আগে তিনি স্বামীর বাড়ি গাজীপুর থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাবার বাড়ি ধুনটে আশ্রয় নেন।

জানা গেছে, সবুজের সঙ্গে ৫ বছর আগে তার বিয়ে হয়। প্রায়ই তাদের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ হতো। শারীরিক সম্পর্ক গড়ার জন্য গত দুমাস ধরে সবুজ তার স্ত্রীকে যৌন উত্তেজক বড়ি খাওয়াতেন। শরীর সুস্থ থাকবে এমন প্রলোভন দেখিয়ে স্ত্রীকে বড়ি খেতে বাধ্য করতেন তিনি।

এদিকে স্ত্রী শারীরিক সুস্থতা অনুভব করার পরও বড়ি সেবন করার কথা বললে স্ত্রীর সন্দেহ হয়। এক পর্যায়ে জানতে পারেন তাকে যৌন উত্তেজক বড়ি সেবন করানো হচ্ছিল। ঘটনার দিন তার কান্না যেন কেউ টের না পায়, এজন্য স্ত্রীর মুখ গামছা দিয়েও বাঁধে সবুজ। 

এ প্রসঙ্গে সবুজ হোসেন বলেন, অবাধ্য স্ত্রীকে চড়-থাপ্পড় মেরে শাসন করেছি। তার শরীরে সিগারেটের ছ্যাঁকা দেয়া হয়নি। বন্ধুদের কথায় যৌন উত্তেজক বড়ি কিনে ঘরে রেখেছিলাম। কিন্ত এই বড়ি তাকে সেবন করানো হয়নি। সে অভিমান করে বাবার বাড়িতে গিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছে।

ধুনট থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, নির্যাতিত গৃহবধূর চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেয়া হয়েছে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে পুড়ে ফোসকা পড়ার চিহ্ন রয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর