দেশে প্রথম করোনা নিয়ে অ্যাপ বানালো টাঙ্গাইলের আল-আমিন

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৪ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭,   ১২ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

দেশে প্রথম করোনা নিয়ে অ্যাপ বানালো টাঙ্গাইলের আল-আমিন

মো. আবু কাওছার আহমেদ, টাঙ্গাইল ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:১৩ ২৭ মার্চ ২০২০   আপডেট: ০১:৩৫ ২৭ মার্চ ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে কয়েক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আর এতে আক্রান্ত হয়েছেন কয়েক লাখ মানুষ। দিন দিন এর বিস্তার বাড়ছে। এরমধ্যে দেশে করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে।

করোনোভাইরাস সম্পর্কে সচেতন হতে হাত ধোয়া, মাস্ক পড়াসহ বিভিন্ন সর্তকর্তামূলক পন্থা অবলম্বন করছেন। আবার কেউ কেউ ইন্টারনেটে এর প্রতিকার সর্ম্পকে জানছেন। ঠিক এই মুহূর্তে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে একটি অ্যাপ তৈরি করেছেন এক কলেজ শিক্ষার্থী। নাম দেয়া হয়েছে ‘করোনা প্রতিকার’। অ্যাপটি দিয়ে সহজেই যে কেউ করোনাভাইরাস সর্ম্পকে তথ্য জানতে পারবেন।

ওই শিক্ষার্থীরা নাম আল আমিন (১৯)। তিনি টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার নায়েব আলীর ছেলে। আল আমিন কালিহাতী কলেজ থেকে এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থী। এ নিয়ে আল আমিন তিনটি অ্যাপ তৈরি করেছেন। 
 
জানা যায়, গত তিনদিন আগে শুক্রবার আল আমিন এই অ্যাপ তৈরির কাজ শেষ করেন। অ্যাপটি তৈরি করতে তার পাঁচদিন সময় লেগেছে। এতে খরচ হয়েছে দুই হাজার টাকা। অ্যাপটিতে রয়েছে আটটি বিভাগ বা আটটি ফোরাম। এগুলো হলো, কীভাবে ছড়ায়, লক্ষণ, প্রতিরোধ, হাত কখন ধুতে হবে, জরুরি সেবা, তথ্য পাঠান, পরামর্শ, অ্যাপস সর্ম্পকে। যে কেউ সহজেই এখান থেকে করোনাভাইরাস সর্ম্পকে তথ্য নিতে পারবে। এমনকি পরামর্শও দিতে পারবে। 

এ ব্যাপারে আল আমিন বলেন, জনসচেতনতার জন্য এই করোনা অ্যাপটি তৈরি করেছি। এই অ্যাপ দিয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সব তথ্য পাওয়া যাবে। এমনকি কখন হাত ধুতে হবে তাও এই অ্যাপ থেকে জানা যাবে। বিনামূল্যে যে কেউ এই অ্যাপ সহজেই ব্যবহার করতে পারবে। যে কোনো স্মার্টফোন দিয়ে এটি ডাউনলোড করা যাবে।

তিনি আরো বলেন, সোমবার রাতেই এটি চালু করা হয়েছে। covid19bangladesh.com -এই পেজে অ্যাপটি পাওয়া যাবে। এতে দেখা যায় অনেকেই এই অ্যাপটি ডাউনলোড করেছেন। এই অ্যাপে বিভিন্ন তথ্য যুক্ত করা যাবে।

সরকারি সহযোগিতা পেলে এই অ্যাপে আরো সেবা পাওয়া যাবে। বিভিন্ন ইউপি এবং গ্রামভিত্তিক তথ্য দেয়া যাবে। আমার আগে কেউ এই অ্যাপ তৈরি করেনি। আমিই প্রথম এই অ্যাপটি তৈরি করেছি বলে দাবি করেন।  

এ ব্যাপারে আল আমিনের চাচাতো ভাই মাসুদ মিয়া বলেন, যেহেতু করোনা আতঙ্কে মানুষ ঘর থেকে কম বের হচ্ছে বা বিভিন্ন জায়গায় লকডাউন করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে ঘরে বসেই মানুষ এই অ্যাপের মাধ্যমে করোনাভাইরাস সম্পর্কে নির্ভুল তথ্য পাবেন। আমি সরকারের সুদৃষ্টি আকর্ষণ করছি যেন এটিকে গুরুত্ব দেয়া হয়।

ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি আগ্রহ ছিল আল আমিনের। মোবাইলের বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার করতে করতেই তার মাথায় আসে স্কুলের বিভিন্ন জটিল কাজগুলোকে সহজ করে একটি অ্যাপ তৈরির আইডিয়া। এরপর থেকে শুরু হয় নিয়মিত টুকটাক গবেষণা। পরে আল আমিন তৈরি করে ফেলেন স্কুল সম্পর্কিত একটি অ্যাপ মাই স্কুল। এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। এছাড়া Attendance নামে তিনি আরো একটি অ্যাপ তৈরি করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম