এই সময়ে নিউমোনিয়া হলে ঘরেই পাবেন প্রতিকার

ঢাকা, সোমবার   ০১ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭,   ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

এই সময়ে নিউমোনিয়া হলে ঘরেই পাবেন প্রতিকার

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:২৮ ১৯ মে ২০২০  

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

দিনে প্রচণ্ড গরম আর রাতে ঠাণ্ডা। এমন আবহাওয়ায় অনেকেই ঠাণ্ডা জ্বরসহ নানা সমস্যায় পড়ছেন। বিশেষ করে শিশুরা। অনেকের নিউমোনিয়াও হয়ে যায়। নিউমোনিয়া হলো ফুসফুসের শ্বাস প্রশ্বাসের সংক্রমণ। 

যা সাধারণত ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস বা ছত্রাকের কারণে ঘটে। ফুসফুসে বায়ু থলে (অ্যালভিওলি) প্রদাহের কারণে ঘটে এবং বায়ু থলিতে তরলে ভরে যায়। যার ফলে শ্বাস নিতে সমস্যা হয়। 

কাশি, জ্বর, বুকে ব্যথা, ক্লান্তি, শ্বাস নিতে অসুবিধা, বমি বমি ভাব, বমিভাব এবং ডায়রিয়া সাধারণত নিউমোনিয়ার লক্ষণ। প্রাথমিক অবস্থায় ঘরোয়া চিকিৎসায় নিউমোনিয়া ভালো করা সম্ভব। জেনে নিন সেগুলো- 

লবণ পানি 

লবণ পানি দিয়ে গারগল আপনাকে কাশি থেকে মুক্তি দিতে পারে। বুকে ও গলায় ঠাণ্ডা বা কফ জমে থাকলে তা খুব সহজেই পরিষ্কার হয়ে যাবে। 

মধু 

মধুতে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। যা নিউমোনিয়ার লক্ষণগুলো থেকে মুক্তি দিতে সহায়তা করে। প্রতি রাতে ঘুমানোর আগে এক চামচ মধু খান।  

চা 

নিউমোনিয়ার লক্ষণগুলো থেকে মুক্তি পেতে চা পান করতে পারেন। এক্ষেত্রে বিভিন্ন ভেষজ চা, আদা চা, হলুদ চা, মশলা চা খুবই উপকারী। দিনে কয়েকবার এসব চা পান করতে পারেন।   

স্টিম নিন

স্টিম বা গরম পানির ভাপ ফুসফুসের মিউকাসগুলো আলগা করতে সহায়তা করে। যা বুকের ব্যথা এবং কাশি থেকে মুক্তি দেয়। এজন্য হাঁড়িতে পানি ফুটিয়ে নিন। এবার একটি তোয়ালে দিয়ে আপনার মাথা ঢেকে নিশ্বাসের সঙ্গে গরম পানির ভাপ নিন। 

ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার

নিউমোনিয়ার লক্ষণ দেখা দিলে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার বেশি করে খান। ভিটামিন সি একটি শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা নিউমোনিয়াসহ বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া এবং ভাইরাল সংক্রমণের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এক্ষেত্রে পেয়ারা, লেবু, আলু, স্ট্রবেরি, ব্রোকলি, ফুলকপি খেতে পারেন।  

ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার

বিভিন্ন ধরণের রোগ প্রতিরোধ ও চিকিৎসায় ভিটামিন ডি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি প্রতিরোধ ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে এবং নিউমোনিয়া লক্ষণগুলো কমাতে সহায়তা করে। ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবারের মধ্যে আপনি পনির, ডিম, মাছের তেল, কমলার রস এবং দুগ্ধজাতীয় খাবার খেতে পারেন।  

তবে এসব ঘরোয়া চিকিৎসার পরও নিউমোনিয়ার অবস্থার পরিবর্তন না হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

সূত্র: বোল্ডস্কাই

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস