শেরপুরে অজ্ঞাত রোগে ছয় ছাত্রী হাসপাতালে
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=167977 LIMIT 1

ঢাকা, শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭,   ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

শেরপুরে অজ্ঞাত রোগে ছয় ছাত্রী হাসপাতালে

শেরপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:২৩ ৮ মার্চ ২০২০  

অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়ে একই স্কুলের ছয় ছাত্রী হাসপাতালে

অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়ে একই স্কুলের ছয় ছাত্রী হাসপাতালে

শেরপুরে অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়ে একই স্কুলের ছয় ছাত্রী জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। রোববার দুপুরে সদর উপজেলার চরশেরপুর কবি নজরুল একাডেমিতে স্কুল চলাকালীন সময়ে এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। অন্যদিকে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অসুস্থ্যদের রোগ নির্ণয় করতে পারেনি চিকিৎসকরা।

শিক্ষার্থী আসিয়া, রাজু, স্বপ্না ও রেজাউল জানায়, দুপুরে এসেম্বলির পর স্কুল চলাকালীন সময়ে হঠাৎ করেই নবম শ্রেণির একজন ছাত্রী অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। পরে তাকে পাশেই এক শিক্ষকের বাসায় রাখা হয়। দশ মিনিটের ব্যবধানে ষষ্ঠ শ্রেণীর একজন ও অষ্টম শ্রেণির চার ছাত্রী অজ্ঞান হয়ে পড়ে। এতে স্কুলে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। অসুস্থ্যদের দ্রুত জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

কবি নজরুল একাডেমির পরিচালক রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রথমে এক ছাত্রীর অসুস্থতার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। এর কিছুক্ষণ পর আরো কয়েকজন ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাদের মাথায় পানি ঢালা হয়। পরবর্তীতে সবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে প্রত্যেককে জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়।   

২নং চরশেরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন সুরুজ বলেন, আমি হাসপাতালে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে প্রত্যেক শিক্ষার্থীর খোঁজ খবর নিয়েছি। একপর্যায়ে এ বিষয়ে জানতে ডাক্তারদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান এটা এক ধরণের হিস্ট্রেরিয়া রোগ। এ  রোগে একজন আক্রান্ত হলে তার দেখাদেখি আরো আশিজন পর্যন্ত আক্রান্ত হতে পারে। 

শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার খায়রুল কবির সুমন বলেন, যেসব ছাত্রী এখানে ভর্তি হয়েছে  কেউ মাথা ব্যথা, কেউ বুকে ব্যথা নিয়ে ভর্তি হয়েছে। তাদের সবাইকেই প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তারা অনেকেই এখন কিছুটা সুস্থতা বোধ করছে। পরে তাদের সঙ্গে কথা বলে বিস্তারিত জানা যাবে।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ