শূন্য ঘোষিত পাবনা-৪ আসনে ভোট ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে: ইসি

ঢাকা, শুক্রবার   ১০ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ২৭ ১৪২৭,   ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

শূন্য ঘোষিত পাবনা-৪ আসনে ভোট ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে: ইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৫৮ ২ জুন ২০২০   আপডেট: ২১:১১ ২ জুন ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

করোনা পরিস্থিতির কারণে ৩০ জুনের মধ্যে সর্বশেষ শূন্য ঘোষিত পাবনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচন সম্পন্ন করা সম্ভব নয়। এ বাস্তবতায় আগামী ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এ আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

মঙ্গলবার এক প্রজ্ঞাপন জারি করে ইসি সচিব মো. আলমগীর এ তথ্য জানান। 

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয় হতে গত ১২ এপ্রিল জারিকৃত ও একই তারিখে বাংলাদেশ গেজেটের অতিরিক্ত সংখ্যায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক ২ এপ্রিল ২০২০ তারিখে পাবনা-৪ আসনটি শূন্য হয়েছে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১২৩-এর দফা (৮) অনুযায়ী উক্ত শূন্য পদ পূরণ করার জন্য ৩০ জুন ২০২০ তারিখের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিধান রয়েছে।

‘গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১২৩-এর দফা (৪)-এর শর্তানুসারে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের মতে, দেশে করোনা ভাইরাসজনিত দৈব-দুর্বিপাকের কারণে এই দফার নির্ধারিত মেয়াদ, অর্থাৎ সংসদীয় আসন শূন্য হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে উল্লিখিত শূন্য আসনের নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্ভব হবে না।’

এ অবস্থায়, পাবনা-৪ শূন্য আসনের নির্বাচন নির্ধারিত মেয়াদের মধ্যে সম্পন্ন করা সম্ভব না হওয়ায় তা পরবর্তী নব্বই দিনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে। ৩০ জুন থেকে পরবর্তী নব্বই দিন যোগ করলে সময়সীমা দাঁড়ায় ২৮ সেপ্টেম্বর। নির্বাচনের সময়সূচি পরবর্তী সময়ে ঘোষণা করা হবে বলেও প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়। 

এ প্রসঙ্গে ইসি কর্মকর্তারা জানান, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নির্বাচন সম্পন্ন করা না গেলে সুপ্রিম কোর্টের কাছ থেকে ব্যাখ্যা নিয়ে ইসিকে করণীয় নির্ধারণ করতে হবে। 

পাবনা-৪ আসনের আগে বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনও শূন্য হয়। গত ২৯ মার্চ ওই দুই আসনে উপ-নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে তাও স্থগিত করে ইসি।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এরইমধ্যে আসন শূন্য হওয়ার পরবর্তী নব্বই দিনে নির্বাচন করার সময়সীমা পার হয়ে গেছে। দৈব-দুর্বিপাকজনিত বাড়তি নব্বই দিন সময় বর্তমানে সিইসির হাতে আছে। অর্থাৎ আসন শূন্য হওয়ার পরবর্তী ১৮০ দিন সময়ও জুলাই মাসে শেষ হয়ে যাবে। হিসেব অনুসারে বগুড়া-১ আসনে ১৫ জুলাই ও যশোর-৬ আসনে ১৮ জুলাই ভোটের সময় শেষ হবে। এর আগে যদি না করোনার প্রকোপ দূর হয়, তবে এ দুই আসনে ভোটের ব্যাপারেও সুপ্রিম কোর্ট থেকে ব্যাখ্যা নিয়ে করণীয় নির্ধারণ করতে হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে