সড়কপথে ভারত ভ্রমণ কাল থেকে, যেভাবে করবেন ভিসা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২,   ২০ আষাঢ় ১৪২৯,   ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

সড়কপথে ভারত ভ্রমণ কাল থেকে, যেভাবে করবেন ভিসা

ভ্রমণ প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২৯ ২৯ মার্চ ২০২২  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সড়কপথে ভ্রমণ ভিসায় ভারতে যাওয়া যাবে আগামীকাল বুধবার থেকেই। যাদের ভারতে যাওয়ার জন্য ভ্রমণ ভিসায় শুধু বাই এয়ার (আকাশপথে ভ্রমণ) অনুমোদন ছিল, তারা সেই ভিসা কনভার্ট করে বাই রোডে ভারতে যেতে পারবেন।

ভারতে যাওয়ার ক্ষেত্রে এখন থেকে নতুন করে বাই রোডে ভ্রমণ ভিসা নেওয়া যাবে। এক্ষেত্রে বেনাপোল ও আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। একইসঙ্গে এখন থেকে ভ্রমণ ভিসা নিয়ে স্থলবন্দরগুলো দিয়ে যাত্রী পারাপারে ভারতীয় হাইকমিশনের ই-মেইল কনফারমেশন লাগবে না।

ভারতীয় ভিসা আবেদন সেন্টার সূত্র জানায়, যেসব বাংলাদেশি নাগরিক আকাশপথে ভ্রমণের জন্য ভারতীয় ভিসার অনুমোদন পেয়েছেন, তারা নির্ধারিত ফি দিয়ে ওই ভিসার পরিবর্তে সড়কপথে ভ্রমণের অনুমোদন নিতে পারবেন। একইসঙ্গে আকাশপথের পাশাপাশি সড়কপথেও ভ্রমণের অনুমোদন সংযোজন করাতে পারবেন।

ভারতে ট্যুরিস্ট ভিসা আবেদনের পদ্ধতি অপরিবর্তিত রয়েছে। ভারতীয় ভিসা আবেদন করার জন্য যা যা লাগবে-

ভিসায় যা যা লাগবে-

১. ভারতীয় ভিসা আবেদনের জন্য পূরণকৃত ফর্ম: এ কাজটি যখন করবেন হাতে সময় নিয়ে মনোযোগ সহকারে করবেন, আবেদনপত্রে যেন কোনো ভুল না থাকে। বেশিরভাগ ভিসার আবেদনপত্রেই প্রত্যাখান হয় আবেদনপত্র ঠিকভাবে পূরণ করতে না পারার কারণে।

২। আপনার সাম্প্রতিক সময়ে তোলা ছবি। সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড ও সাইজ হবে দুই ইঞ্চি / দুই ইঞ্চি।

৩। বিদ্যুৎ/গ্যাস বা যে কোনো একটি ইউটিলিটি বিলের ফটোকপি। মনে রাখবেন বিলে আপনার ঠিকানা যেভাবে আছে ঠিক সেভাবেই ভিসার আবেদনপত্রে দেবেন।

৪। আপনার পাসপোর্ট এবং সেই পাসপোর্টের ফটোকপি।

৫। আপনার এনআইডি কার্ড অথবা জন্মসনদ এর ফটোকপি।

৬। আপনি যদি ছাত্র হয়ে থাকেন তাহলে আপনার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আইডি কার্ডের ফটোকপি আর যদি চাকুরিজীবি হয়ে থাকেন তাহলে NOC আর যদি আপনি ব্যবসায়ী হয়ে থাকেন তাহলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স এর ফটোকপি।

৭। আর্থিক স্বচ্ছলতার প্রমাণ দেখাতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার পাসপোর্টে ব্যাংক থেকে ১৫০ ডলার এনডোর্স করা থাকবে। এছাড়া ব্যাংক স্টেটমেন্ট যেখানে সর্বশেষ ব্যালেন্স ২০,০০০ টাকা আছে, দিলে হবে। আর যদি আপনার ক্রেডিট কার্ড এনডোর্স করা থাকে সেক্ষেত্রে পাসপোর্টের যে পৃষ্ঠায় ক্রেডিট কার্ড এনডোর্স করা আছে সে পৃষ্ঠার ফটোকপি ও ক্রেডিট কার্ডের উভয় পিঠের ফটোকপি দিলে চলবে।

৮। এম্বেসিতে প্রবেশের পূর্বে ভিসা ফি বাবদ ৮০০ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

কাগজপত্র আইভ্যাকের কর্মকর্তারা দেখে আপনাকে একটা টোকেন দিয়ে পাসপোর্ট জমা কাগজপত্রসহ জমা রেখে দিবে। টোকেনে উল্লেখিত দিনে যেয়ে আপনি আপনার পাসপোর্ট ফেরত নিয়ে আসবেন। মনে রাখবেন পাসপোর্ট জমা নেয় সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ১২:৩০টা পর্যন্ত (যমুনা ফিউচার পার্কে ১:৩০ পর্যন্ত নেয়)। আর পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে যাবেন বিকাল তিনটা থেকে পাঁচটার মধ্যে।

বাংলাদেশে মোট ১৫টি আইভ্যাক আছে। এগুলো হচ্ছে ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, কুষ্টিয়া, যশোর, রংপুর, কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নোয়াখালী, সাতক্ষীরা, বরিশাল, বগুড়া, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, ঠাকুরগাঁও ও সিলেটে।

মহামারি করোনাকালীন প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকার পর গত ১৫ নভেম্বর থেকে ভারতের ভ্রমণ ভিসা চালু হয়। যদিও তখন তা ছিল শুধুমাত্র আকাশপথে। তবে এখন থেকে স্থলপথেও ভ্রমণ ভিসায় বাংলাদেশিরা ভারতে যেতে পারবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে

English HighlightsREAD MORE »