অভিষিক্ত অধিনায়ক কামিন্স তোপে লন্ডভন্ড ইংল্যান্ড

ঢাকা, সোমবার   ১৭ জানুয়ারি ২০২২,   ৩ মাঘ ১৪২৮,   ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

অভিষিক্ত অধিনায়ক কামিন্স তোপে লন্ডভন্ড ইংল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:২৯ ৮ ডিসেম্বর ২০২১  

প্যাট কামিন্স

প্যাট কামিন্স

টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে নিজের প্রথম ম্যাচেই প্রতিপক্ষকে ধরাশায়ী করলেন অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্স। আজ ব্রিসবেনে শুরু হওয়া অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের মধ্যকার ঐতিহ্যবাহী অ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে অজি অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক ঘটলো কামিন্সের।

প্রথম টেস্টের প্রথম দিনই বল হাতে ইংল্যান্ডকে লন্ডভন্ড করে দিলেন কামিন্স। তার বোলিং তোপে প্রথম ইনিংসে ১৪৭ রানে গুটিয়ে গেছে ইংল্যান্ড। ৩৮ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন কামিন্স। অধিনায়ক হিসেবে প্রথম ম্যাচেই এমন কীর্তিতে রেকর্ড বইয়ে একাধিক জায়গায় নিজের নামও তুলেছেন তিনি।

ব্রিসবেনে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। ইনিংসের প্রথম বলেই ইংল্যান্ডের ওপেনার ররি বার্নসকে বোল্ড করেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল স্টার্ক। স্টার্কের এমন শুরু অব্যাহত রাখেন আরেক পেসার জশ হ্যাজেলউড ও কামিন্স। ইংল্যান্ডের মিডল-অডার্রকে দুমড়ে-মুচড়ে ফেলেন তারা।

ডেভিড মালানকে ৬ ও ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুটকে খালি হাতে প্যাভিলিয়নের টিকিট ধরিয়ে দেন হ্যাজেলউড। আর দীর্ঘদিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে নামা বেন স্টোকসকে ৫ রানের বেশি করতে দেননি কামিন্স। এতে ২৯ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে মহাচাপে পড়ে ইংল্যান্ড।

টপ-অডার্রের সঙ্গীদের যাওয়া-আসার মাঝে এক প্রান্ত আগলে রেখেছিলেন ওপেনার হাসিব হামিদ। কিন্তু ২৫ রানে কামিন্সের শিকার হন তিনি।দলীয় ৬০ রানে পঞ্চম উইকেট পতনের দ্রুত অলআউটের শংকা জাগে ইংল্যান্ড শিবিরে।

তবে সেটি হতে দেননি উইকেটরক্ষক জস বাটলার ও ওলি পোপ। ষষ্ঠ উইকেটে দলের স্কোর ১০০ পার করেন বাটলার ও পোপ। ৫৮ বলে ৫টি বাউন্ডারিতে ৩৯ রান করা বাটলারকে বিদায় করেন স্টার্ক। পোপের সাথে ৫২ রানের জুটি গড়েন বাটলার।

বাটলারের বিদায়ের ধাক্কাটা নিতে পারেননি উইকেট সেট থাকা পোপ। ১৬ বল বাদে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন তিনিও। মিডিয়াম পেসার ক্যামেরুন গ্রিনের বলে ব্যক্তিগত ৩৫ রানে আউট হন পোপ। পাঁচ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে এটাই গ্রিনের প্রথম উইকেট।

এরপর ইংল্যান্ডের শেষ ৩ উইকেট তুলে ৫০ দশমিক ১ ওভারে প্রতিপক্ষের ইনিংসের ইতি টানেন কামিন্স। ক্রিস ওকসকে ২১, ওলি রবিনসনকে ০ ও মার্ক উডকে ৮ রানে আউট করেন তিনি। এর মাধ্যমে ইনিংসে পাঁচ উইকেট পূর্ণ করেন কামিন্স। ৩৫ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে ষষ্ঠবারের মত পাঁচ বা ততোধিক উইকেট শিকারের  স্বাদ পান এই পেসার।

১৮৯৪ সালের পর অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক ম্যাচে পাঁচ উইকেট নেয়ার রেকর্ড গড়েন কামিন্স। ১৮৯৪ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অধিনায়ক হিসেবে অভিষেকেই ১৫৫ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন জিওর্জি গিফিন। আর সব মিলিয়ে ১৪তম খেলোয়াড় হিসেবে এই নজির গড়লেন কামিন্স।

কামিন্সের কীর্তির পর বৃষ্টির কারণে দিনের খেলা আর মাঠে গড়াতে পারেনি। তাই ব্যাট হাতে ইনিংস শুরু করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস/এএল

English HighlightsREAD MORE »