দেশ ছেড়ে পাকিস্তানে আশ্রয় নিলেন আফগান নারী ফুটবলাররা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৪ ১৪২৮,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দেশ ছেড়ে পাকিস্তানে আশ্রয় নিলেন আফগান নারী ফুটবলাররা

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৫৫ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৩:৫৬ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

পাকিস্তানে পৌঁছানো আফগানিস্তানের নারী ফুটবলার ও তাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা

পাকিস্তানে পৌঁছানো আফগানিস্তানের নারী ফুটবলার ও তাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা

তালেবেনরা আফগানিস্তান দখলের পর থেকে দেশ ছেড়ে পালাচ্ছে মানুষ। ক্ষমতা দখল করেই ক্রীড়াঙ্গনে নারীদের নিষিদ্ধ করেছে তালেবান সরকার। এবার দেশ ছেড়েই পালালেন আফগানিস্তানের নারী ফুটবলাররা। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে তারা আশ্রয় নিয়েছেন প্রতিবেশী রাষ্ট্র পাকিস্তানে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, পাকিস্তানে আশ্রয় নেয়া নারী ফুটবলারদের অনেকেই বয়সভিত্তিক ফুটবল দলের। এ সংখ্যাটা কমপক্ষে ৮১। আরো ৩৪ জনের পাকিস্তানে পৌঁছানোর কথা। 

পাকিস্তান ফুটবল ফেডারেশনের কর্মকর্তা উমর জিয়া বলেন, আপাতত পাকিস্তানে থাকবেন এই ফুটবলার ও তাদের পরিবার। ৩০ দিন পর তারা তৃতীয় কোনো দেশে চলে যাওয়ার জন্য আবেদন করবেন। আমেরিকা, ইংল্যান্ড কিংবা অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশে তাদের পাঠানোর ব্যাপারে চেষ্টা করবে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো। 

তোরখাম সীমান্ত দিয়ে তারা পাকিস্তান পৌঁছেছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স। পাকিস্তানের লাহোরের গাদ্দাফি স্পোর্টস কমপ্লেক্সে তাদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আগানিস্তান তালেবান দখলদারির পর থেকে প্রচুর মানুষ দেশ ছাড়ছেন। এঁদের মধ্যে একটা বড় অংশ বুদ্ধিজীবী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও খেলোয়াড়েরা। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত আফগানিস্তানে প্রথম তালেবান শাসনের সময় নারীদের ওপর খড়্গহস্ত ছিল তারা। সেখানে মেয়েদের স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়া নিষিদ্ধ ঘোষিত হয়েছিল। নারীদের কাজকর্ম করার ব্যাপারেও নেমে এসেছিল নিষেধাজ্ঞা। সে সময় নারীদের খেলাধুলায় অংশগ্রহণ ছিল বড় ধরনের অপরাধ।

২০ বছর পর আফগানিস্তান নতুন করে তালেবান শাসনের অধীনে আসার পর একই ধরনের হুমকি তৈরি হয়েছে দেশটিতে। 

কিছুদিন আগে একজন তালেবান মুখপাত্র একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে বলেছেন, তিনি মনে করেন না নারীদের খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করতে দেওয়ার কোনো কারণ আছে। তিনি নারীদের খেলাধুলায় অংশগ্রহণকে ‘ইসলাম বিরোধী’ আর ‘অপ্রয়োজনীয়’ হিসেবে বর্ণনা করেন।

তালেবান দখলদারির শুরুতেই আফগানিস্তান নারী ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক মেয়ে ফুটবলারদের নিজেদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সব পোস্ট মুছে ফেলার পরামর্শ দিয়েছিলেন। তিনি তাদের খেলার সামগ্রীগুলো পুড়িয়ে ফেলতে বলেছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস