৩ মাদরাসা ছাত্রীর নিখোঁজের ঘটনায় চার শিক্ষককের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৮ ১৪২৮,   ১৪ সফর ১৪৪৩

৩ মাদরাসা ছাত্রীর নিখোঁজের ঘটনায় চার শিক্ষককের বিরুদ্ধে মামলা

জামালপুর ও ইসলামপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪৪ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৭:৪৫ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

মানবপাচারের মামলায় গ্রেফতারকৃত চার শিক্ষক

মানবপাচারের মামলায় গ্রেফতারকৃত চার শিক্ষক

জামালপুরের ইসলামপুরে তিন মাদরাসা ছাত্রী নিখোঁজের ঘটনায় হেফাজতে থাকা বাংলাবাজার সভুকড়া দারুত তাক্ওয়া মহিলামাদরাসার চার শিক্ষকের বিরুদ্ধে মানবপাচারের অভিযোগে মামলা হয়েছে। বুধবার দুপুরে আসামিদের আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এর আগে, মঙ্গলবার রাতে নিখোঁজ মীম আক্তারের বাবা মো. মনোয়ার হোসেন মামলাটি করেছেন। আসামিরা হলেন শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার ঝড়াকুড়া গ্রামের মো. মোশাররফের ছেলে ও মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মো. আসাদুজ্জামান, সহকারী শিক্ষক রাবিয়া আক্তার, ইসলামপুরের পলবান্ধা ইউনিয়নের সিরাজাবাদ গ্রামের মজিবর রহমান জোয়ার্দারের ছেলে মো. ইলিয়াস আহমেদ ও ইসলামপুর পৌর এলাকার দক্ষিণ দরিয়াবাদ গ্রামের মো. ইসমাইল হোসেনের মেয়ে শুকরিয়া।

গত রোববার ভোরে ইসলামপুরের গোয়ালেরচর ইউনিয়নের বাংলাবাজার সভুকড়া দারুত তাক্ওয়া মহিলা মাদরাসা থেকে মীম, মনিরা ও সূর্য বানু নামে দ্বিতীয় শ্রেণির তিন ছাত্রী নিখোঁজ হয়। ওই ঘটনায় সোমবার বিকেলে ইসলামপুর থানায় জিডি করেন মুহতামিম আসাদুজ্জামান।

জিডি সূত্রে জানা গেছে, রোববার ভোরে ফজরের নামাজ পড়ার জন্য সব ছাত্রীকে ডেকে তোলা হয়। সবাই নামাজে যাওয়ার পর ওই তিন ছাত্রী মাদরাসার পেছনের জানালা দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে বিষয়টি অবিভাবকদের জানানো হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিখোঁজ ছাত্রীদের সন্ধান না পাওয়ায় সোমবার রাতে সব ছাত্রীকে অভিভাবকদের হাতে তুলে দিয়ে মাদরাসাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপর মঙ্গলবার ভোরে মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আসাদুজ্জামানসহ চার শিক্ষককে হেফাজতে নেয়া হয়। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মাহমুদুল হাসান মোড়ল জানান, মঙ্গলবার রাতে ওই চার শিক্ষকের বিরুদ্ধে মানবপাচারের অভিযোগে মামলা করেছেন নিখোঁজ এক ছাত্রীর বাবা। ওই মামলায় আসামিদের আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। পরে আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর