কাল ছিল গাঁয়ে হলুদ, আজ ন্যান্সির বিয়ে

ঢাকা, শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৪ ১৪২৮,   ০৯ সফর ১৪৪৩

কাল ছিল গাঁয়ে হলুদ, আজ ন্যান্সির বিয়ে

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৩৪ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বিচ্ছেদের পরই নতুন জীবনের সূচনার কথা ঘোষণা করেছিলেন দেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। এরপর গেলো আগস্টের শেষ সপ্তাহে গীতিকার মহসীন মেহেদীর সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এই গায়িকা।

তবে একেবারে পারিবারিকভাবে তাদের আকদ সম্পন্ন হয় সেই সময়। কিন্তু অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন এবার আর লুকোচুরি নয় জাঁকজমকভাবে বিয়ে করবেন তিনি। যেমন কথা, তেমন কাজ। 

গতকাল মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) জাঁকজমকভাবে সম্পূর্ণ হয়েছে গায়িকার গায়ে হলুদ। আজ বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) তাদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়েছে।

এরই মধ্যে ন্যান্সি ও মেহেদীর গায়ে হলুদের ছবি প্রকাশ্যে এসেছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বর-কনে দুজনই হলুদ সাজে সেজেছেন। ন্যানসি পরেছেন হলুদ লেহেঙ্গা। গলায় মোটা হার, কপালে বড় টিকলি আর হাত ভর্তি চুড়িতে সেজেছেন তিনি। অন্যদিকে মেহেদীর পরনে ছিল হলুদ রঙা পাঞ্জাবি ও কটি। ছবিতে তাদের দুজনকেই বেশ হাস্যোজ্জ্বল দেখাচ্ছিলো।

এ প্রসঙ্গে ন্যান্সি গণমাধ্যমকে বলেন, ঘরোয়াভাবেই পরিবারের সদস্যদের নিয়ে হয়েছে আমাদের গায়ে হলুদ। বাসার ছাদে অনেক গাছপালার মধ্যে ডেকোরেশন করা হয়েছিলো। এছাড়া আমার হলুদ এবং পিঠা-পানি যা ছিলো সেগুলোর কিছুই বাইরে থেকে আনা হয়নি।

তিনি আরো জানান, আমার শাশুড়ির যথেষ্ট বয়স হয়েছে। তাছাড়া বড় ছেলের বিয়ে বলে কথা। এজন্য নিজের আনন্দের জায়গা থেকেই মেহেদি বাটাসহ বেশকিছু কাজ তিনি নিজ হাতেই করেছেন।

গানের সুবাদে মহসীন মেহেদীর সঙ্গে ন্যান্সির পরিচয়। গত বছর মহসীনের লেখা ‘এমন একটা মন’ শিরোনামের একটি গানে কণ্ঠ দেন এই গায়িকা। গানটি সিএমভি থেকে প্রকাশ পায়। এরপর থেকেই দুজনের মধ্যে সখ্য গড়ে ওঠে।

উল্লেখ্য, এটি ন্যান্সির তৃতীয় বিয়ে। এর আগে ২০০৬ সালে ভালোবেসে তিনি বিয়ে করেন ব্যবসায়ী আবু সাঈদ সৌরভকে। ২০১২ সালের ২৪ মে বিচ্ছেদ হয় তাদের। এরপর ২০১৩ সালের ৪ মার্চ নাজিমুজ্জামান জায়েদকে বিয়ে করেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই সংগীতশিল্পী। জায়েদ ময়মনসিংহ পৌরসভার কর্মকর্তা এবং ব্যবসায়ী। ন্যানসির বর্তমান স্বামী মহসীন মেহেদী অনুপম মিউজিকের চিফ অপারেটিং অফিসার এবং একজন গীতিকবি।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস