ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জে ১ দিনে দেড় হাজার ডলফিন হত্যা

ঢাকা, সোমবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৫ ১৪২৮,   ১১ সফর ১৪৪৩

ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জে ১ দিনে দেড় হাজার ডলফিন হত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:১৬ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ইউরোপের ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জের সমুদ্র উপকূলে একদিনে রেকর্ড ১ হাজার ৪২৮টি ডলফিন হত্যার ঘটনায় তোপের মুখে পড়েছে প্রশাসন। ডলফিন শিকারের চর্চা নিয়ে আগে থেকেই নজরদারিতে ছিল ডেনমার্কের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলটি।

সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, উত্তর আটলান্টিক মহাসাগরের সবচেয়ে বড় খাঁড়িতে গত রোববার তাড়া করে আনা হয় আংশিক সাদা ডলফিনের বিশাল একটি ঝাঁক। নৌকা নিয়ে তাদের তাড়া করে অল্প পানির এলাকায় প্রবেশ করায় শিকারিরা। এরপর আইস্টারয় দ্বীপের স্কালাবোটনার উপকূলে ছুরি দিয়ে আঘাত করে হত্যা করা হয় এ বিপুলসংখ্যক ডলফিন। পরে ডলফিনের মৃতদেহগুলোকে তীরে এনে মাংস খাওয়ার জন্য স্থানীয়দের মধ্যে বিতরণ করে দেয়া হয়।

প্রকাশিত ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, ডলফিনের রক্তে লাল রং ধারণ করেছে সমুদ্রসৈকত। ভিড় করে সে দৃশ্য দেখছে হাজারো মানুষ।

প্রত্যন্ত ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জে স্তন্যপায়ী সামুদ্রিক প্রাণী হিসেবে শুরুতে তিমি এবং পরে ডলফিন শিকারের এই চর্চা কয়েক শ বছরের। ফ্যারো সরকারের তথ্য অনুযায়ী, প্রতি বছর প্রায় ৬০০ পাইলট তিমি ধরা হয় অঞ্চলটিতে।

দেহের আংশিক সাদা রঙের ডলফিন তুলনামূলক কম ধরা হয়। যেমন ২০২০ সালে ৩৫টি এবং ২০১৯ সালে ১০টি ধরা হয়েছিল বলে জানা যায়।

সমর্থকদের দাবি, খাদ্য সংগ্রহের একটি স্থায়ী উপায় হলো তিমি শিকার। একই সঙ্গে অঞ্চলটির বাসিন্দাদের জন্য সংস্কৃতির একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশও এটি। তবে এ চর্চা অপ্রয়োজনীয় এবং নিষ্ঠুর বলে দীর্ঘদিন ধরে যুক্তি দিয়ে আসছেন পশুপ্রেমী, প্রাণী অধিকারকর্মী ও পরিবেশবাদীরা।

রোববারের ঘটনাও আলাদা কিছু নয় বলে নিন্দা জানিয়েছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রাণী সংরক্ষণ গোষ্ঠী।

স্কালাবোটনারে ডলফিন হত্যার এ ব্যাপকতায় হতবাক স্থানীয় অনেক বাসিন্দাও। এমনকি এ চর্চার সমর্থক কয়েকটি গোষ্ঠীও এ ঘটনার সমালোচনা করছে।

ফ্যারোইজ হোয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ওলাভার জুরদারবার্গের দাবি, প্রায় দেড় হাজার ডলফিন হত্যার ঘটনা ইচ্ছেকৃত নয়, বরং ভুলবশত ঘটেছে। প্রাথমিকভাবে শিকারিরা ভেবেছিল যে ঝাঁকটিতে ২০০’র মতো ডলফিন আছে। প্রকৃত সংখ্যা যে হাজারের কাছাকাছি হতে পারে, তেমন কিছু কল্পনাও করেননি তারা।

তারপরেও এ ঘটনায় আইন লঙ্ঘন হয়নি এবং স্থানীয় প্রশাসনের অনুমতিতেই হয়েছে বলে দাবি করেন জুরদারবার্গ।

ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জের মেরিন বায়োলজিস্ট জার্নি মিকেলসেন জানান, এক দিনে এত ডলফিন হত্যার ঘটনা অঞ্চলটিতে এটাই প্রথম। শেষবার দিনে সর্বোচ্চ ডলফিন হত্যার ঘটনা ঘটেছিল ৮১ বছর আগে।

১৯৪০ সালে এক দিনে হত্যা করা হয়েছিল ১ হাজার ২০০ ডলফিন। তৃতীয় সর্বোচ্চ রেকর্ড ছিল ১৮৭৯ সালে, হত্যা করা হয়েছিল ৯০০টি ডলফিন। তার আগে ১৮৭৩ সালে ৮৫৬টি, ১৯৩৮ সালে ৮৫৪টি ডলফিন হত্যার রেকর্ড রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ