ফার্মগেট ব্রিজ থেকে লিমাকে নিয়ে যান হোটেলে, অর্থ বেশি চাওয়ায় খুন

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৮ ১৪২৮,   ১৪ সফর ১৪৪৩

ফার্মগেট ব্রিজ থেকে লিমাকে নিয়ে যান হোটেলে, অর্থ বেশি চাওয়ায় খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩৫ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১  

মো. খোকন ভুঁইয়া। ছবি: সংগৃহীত

মো. খোকন ভুঁইয়া। ছবি: সংগৃহীত

মোছা. আসমা ওরফে লিমা বেগম (২৫) নামে একজন যৌনকর্মীর মরদেহ রাজধানীর শ্যামলীর একটি হোটেল থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মাটিকাটা এলাকা থেকে প্রধান আসামি মো. খোকন ভুঁইয়াকে (২৮) গ্রেফতার করা হয়েছে।

গত ৮ সেপ্টেম্বর শ্যামলীর রাজ ইন্টারন্যাশনাল হোটেল থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ওই যৌনকর্মীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মৃত নারীর স্বামী বাদী হয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় অজ্ঞাতনামা আসামিদের দায়ী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

তেজগাঁও জোনাল টিমের টিম লিডারের নেতৃত্বে গত রোববার রাতে একটি টিম সিসি টিভি ফুটেজ ও তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় রাজধানীর মাটিকাটা এলাকা থেকে খোকন ভুঁইয়া নামক এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়। আসামি আদালতে নিজের দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।

জানা যায়, খোকন এক সময় মধ্যপ্রাচ্যে শ্রমিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। দেশে ফিরে ক্যান্টনমেন্ট এলাকার একটি রেস্তোরাঁয় কাজ নেন। ৭ সেপ্টেম্বর মিরপুরের শেওড়াপাড়া এলাকায় তার এক বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে যান। সেখানে দুজনে বিয়ার পান করেন। এরপর চলে আসেন ফার্মগেট এলাকায়।

রাত ২টার দিকে ফার্মগেট ফুটওভার ব্রিজের ওপর আসমা ওরফে লিমা বেগম নামের এক নারীর সঙ্গে তার কথা হয়। কবিতা তার সঙ্গে রাত কাটাতে সম্মত হলে দুজনে চলে যান শ্যামলীর রাজ ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেলে। তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেলটির ছয়তলার ৬০২ নম্বর কক্ষে ওঠেন। পরদিন ওই কক্ষেই খাটের সঙ্গে ওড়না দিয়ে হাত বাঁধা অবস্থায় কবিতার মরদেহ পাওয়া যায়।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম জানান, অতিরিক্ত অর্থ দাবি করায় ওই যৌনকর্মীকে হত্যা করে পালিয়ে যান খোকন। এরপর নিজের মোবাইল বন্ধ করে আত্মগোপনে চলে যান।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে