শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, কাঁদতেই আমড়া খাওয়াবেন বলে বাড়ি ছাড়েন শিক্ষক

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৮ ১৪২৮,   ১৪ সফর ১৪৪৩

শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, কাঁদতেই আমড়া খাওয়াবেন বলে বাড়ি ছাড়েন শিক্ষক

নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:৫৪ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১  

অভিযুক্ত নুরুল ইসলাম

অভিযুক্ত নুরুল ইসলাম

ময়মনসিংহের নান্দাইলে আট বছরের শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে ৬৫ বছর বয়সী এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত নুরুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

সোমবার রাত ১১টার দিকে মামলাটি করেন ভুক্তভোগীর শিশুর বাবা। অভিযুক্ত নুরুল ইসলাম উপজেলার আচারগাঁও ইউপির সিংদই গ্রামের সহা মিয়ার ছেলে। তিনি কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার এলাহী নেওয়াজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, ৫ সেপ্টেম্বর বাড়িতে কেউ না থাকায় ঘরে ঢুকে ওই শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন নুরুল ইসলাম। এতে শিশুটি কান্নাকাটি করলে আমড়া খাওয়াবে বলে নুরুল ইসলাম চলে যান।

শিশুটির বাবা রোববার রাতে নুরুল ইসলাম মাস্টারের বাড়িতে ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিষয়টি জানালে কেউ গুরুত্ব দেননি। বিষয়টি জানাজানি হলে শিশুর বাবাকে প্রথমে তিন হাজার পরে পাঁচ হাজার টাকা দিয়ে চুপ থাকতে বলেন নুরুল ইসলাম মাস্টারের চাচাতো ভাই হারিছ, ভাতিজা আমিনুল, সাবেক মেম্বার আবদুর রশিদ।

এদিকে, ওই শিশুর শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে থাকলে সোমবার দুপুরে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান স্বজনরা। বিষয়টি বুজতে পেরে নান্দাইল থানায় জানান চিকিৎসক। পরে হাসপাতালে গিয়ে ওই শিশুকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। এ ঘটনায় ওইদিন রাত ১১টার দিকে নান্দাইল থানায় মামলা করেন শিশুর বাবা।

নান্দাইল মডেল থানার ওসি (তদন্ত) ওবায়দুর রহমান বলেন, ওই শিশুকে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলার অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর