ফেনীতে কালো বোরকা মোড়ানো গলিত লাশ উদ্ধার

ঢাকা, সোমবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৫ ১৪২৮,   ১১ সফর ১৪৪৩

ফেনীতে কালো বোরকা মোড়ানো গলিত লাশ উদ্ধার

ফেনী প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:৪২ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১  

উদ্ধারকৃত লাশ-প্রতীকী ছবি

উদ্ধারকৃত লাশ-প্রতীকী ছবি

ফেনীতে নাইলনের রসি দিয়ে হাত-পা বাঁধা ও কালো বোরকা দিয়ে মোড়ানো এক নারীর গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ফেনী সদর উপজেলার শর্শদি ইউনিয়নের সুন্দরপুর গ্রামে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পশ্চিম পাশে জঙ্গলের মধ্য থেকে এ গলিত লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ফেনী সদর উপজেলার শর্শদি ইউনিয়নের সুন্দরপুর গ্রামে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পশ্চিম পাশে জঙ্গলের মধ্যে কোনো লোকজনের যাতায়াত ছিল না। কে বা কারা ওই নারীকে অন্য কোথাও হত্যার পর হাত-পা নাইলনের রশি দিয়ে বেঁধে কালো বোরকা মুড়িয়ে ওই স্থানে ফেলে যায়। সোমবার বিকেলে ফেনী পল্লী বিদ্যুতের লোকজন বিদ্যুতের লাইনের নিচে গাছের ডালপালা কাটার সময় জঙ্গলের মধ্যে কালো কাপড় মোড়ানো লাশের মতো দেখতে পেয়ে ফেনী থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ওই স্থানে পৌঁছে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

পুলিশ জানায়, ওই নারীর পরনে জিন্সের প্যান্ট ছিল। হাত-পা বাঁধা হলেও পা দুটিকে প্রথমে গোড়ালিতে বেঁধে পরে আবার হাঁটু থেকে উল্টো করে বাঁধা হয়। শরীরের মাংস খসে গেছে। চেনার উপায় নেই। মাথার চুল দেখে নারী বলে শনাক্ত করা হয়।

লাশ পাওয়ার খবর শুনে ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও ক্রাইম) মঈনুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) থোয়াই অং প্রু মারমা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এছাড়া জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) সদস্যরাও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ফেনী মডেল থানার ওসি মো. নিজাম উদ্দিন এক নারীর হাত-পা বাঁধা গলিত লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, অন্য কোথাও হত্যার পর লাশটি ওই স্থানে জঙ্গলের মধ্যে ফেলে গেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ