কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতি: যা পড়তে হবে

ঢাকা, সোমবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৫ ১৪২৮,   ১১ সফর ১৪৪৩

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতি: যা পড়তে হবে

শিক্ষাঙ্গন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৪৭ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১  

(ফাইল ছবি)

(ফাইল ছবি)

শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমাতে দ্বিতীয়বারের মতো ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে অনুষ্ঠিত হচ্ছে দেশের ৭ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা। আগামী ২৭ নভেম্বর একযোগে ৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। 

MCQ পদ্ধতিতে ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এইচএসসি/সমমান পর্যায়ের ইংরেজিতে ১০, প্রাণিবিজ্ঞানে ১৫, উদ্ভিদবিজ্ঞানে ১৫, পদার্থবিজ্ঞানে ২০, রসায়নে ২০ এবং গণিতে ২০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।

রসায়ন:

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় রসায়নের মার্কসের ওপর তোমাদের সাফল্য অনেকটাই নির্ভর করে। রসায়নের প্রতিটি বিষয়ের ওপর স্পষ্ট ধারণা রাখতে হবে। প্রথমেই নামধারী বিক্রিয়াগুলোর তাপমাত্রা, চাপ, প্রভাবক পড়তে হবে। গুরুত্বপূর্ণ ধ্রম্নবকগুলোর নাম ও একক পড়তে হবে। জৈব যৌগ থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রস্তুতপ্রণালি রয়েছে, সেগুলো মনে রাখার চেষ্টা করতে হবে। এ ছাড়া বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ যৌগ ও মৌলের (গ্রম্নপ-১, গ্রম্নপ-২) পারমাণবিক ভর, গলনাংক ও স্ফুটনাংক পড়বে। বায়ুমন্ডলের বিভিন্ন স্তরের নাম, এদের তাপমাত্রা, দূরত্ব, বিভিন্ন গ্যাসের পরিমাণ মনে রাখতে হবে। বিভিন্ন প্রিজারভেটিসের নাম, এদের কাজ, পারমাণবিক মডেলের আবিষ্কারকের নাম ও সাল পড়তে হবে। 

জীববিজ্ঞান:

জীববিজ্ঞানের ক্ষেত্রে মেডিকেলের প্রস্তুতিই অনেকটাই এগিয়ে দেয় কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার জন্য। প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের প্রস্তুতিও জীববিজ্ঞানে ভালো করলেই হয়ে যায়। জীববিজ্ঞানে সাধারণত দুটি অংশ থেকে মোট ৩০টি প্রশ্ন করা হয়। উদ্ভিদ বিজ্ঞান থেকে ১৫টি এবং প্রাণিবিজ্ঞান থেকে ১৫টি। উদ্ভিদবিজ্ঞান থেকে প্রথমে ছক, পার্থক্য, বৈশিষ্ট্য পড়তে হবে। প্রাণিবিজ্ঞানের মানবদেহের কঙ্কালতন্ত্র অধ্যায়টিতে বিভিন্ন হাড়ের নাম শর্টকাট পদ্ধতিতে মনে রাখতে হবে। উদ্ভিদবিজ্ঞানের অনুজীব, নগ্নবীজী ও আবৃতবীজী উদ্ভিদ, উদ্ভিদ শারীরতত্ত্ব এই অধ্যায়গুলো ভালোভাবে পড়তে হবে। 

পদার্থ ও গণিত

পদার্থ ও গণিত বিষয়ের ক্ষেত্রে একটু কৌশলে পড়তে হবে। পদার্থতে ২০টি ও গণিতে ২০টি করে নৈর্ব্যত্তিক প্রশ্ন থাকবে। কৃষি বিষয়টা যেমন সহজ তেমনি ভর্তির সময় পদার্থ ও গণিতের অংকটাইপের নৈর্ব্যত্তিকগুলোও অনেক সহজ হয়। প্রশ্নগুলো অধিকাংশই বোর্ড বইয়ের বেসিক ও ছোট সূত্রগুলো থেকে থাকে। পদার্থ ও গণিতের ছোট সূত্রগুলো অবশ্যই মুখস্থ রাখতে হবে। পদার্থে বিশেষ করে বিজ্ঞানীদের নাম ও সাল আয়ত্তে রাখতে হবে। 

ইংরেজি

পরীক্ষায় পদার্থ, রসায়ন, জীববিজ্ঞান ও গণিতে মোটামুটি সবাই ভালো করে। কারণ প্রস্তুতির বেশিরভাগ সময়টাই কাটে এসব বিষয় নিয়ে, কেউ ইংরেজিতে তেমন জোর দেয় না। কিন্তু যারা একটু ইংরেজিতে ভালো করে, দিন শেষে তারাই এগিয়ে থাকে। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় এবার ইংরেজি বিষয় থেকে ১০ মার্কসের প্রশ্ন থাকবে। যার মধ্যে বেশিরভাগ প্রশ্ন আসে বেসিক গ্রামার থেকে। তবে প্রতিটি অংশের ব্যতিক্রমগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এগুলো ভালো করে পড়লেই খুব সহজে ৭-৮ মার্কস পাওয়া যাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম