এরপর বাবা-মায়ের পছন্দে বিয়ে করবো, ক্ষোভ প্রকাশ মাহির প্রাক্তন স্ব

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৮ ১৪২৮,   ১৪ সফর ১৪৪৩

এরপর বাবা-মায়ের পছন্দে বিয়ে করবো, ক্ষোভ প্রকাশ মাহির প্রাক্তন স্বামীর

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৪১ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৩:৪৭ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। কয়েকদিন ধরেই গুজব উঠেছিলো দ্বিতীয় বিয়ে করছেন এই নায়িকা। সাবেক ছাত্রলীগ এক নেতাকে নিয়েই তার বিয়ের গুজব উঠেছিলো। অবশেষে সেই পাত্রকেই বিয়ে করলেন ঢাকাইয়া ছবির এই নায়িকা। 

এর আগে ২০১৬ সালে জমকালো আয়োজনে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে বিয়ে করেছিলেন মাহি। এর কয়েক বছর পর থেকেই তার বিয়ে বিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা গেলেও তা তিনি অস্বীকার করে আসছিলেন। এরপর গত মে মাসে মাহি নিজেই ফেসবুকে অপুর সঙ্গে তার বিবাহবিচ্ছেদের খবর জানান। বিচ্ছেদের পর থেকেই ঢালিউড এই অভিনেত্রীর বিভিন্ন ফেসবুক স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে দ্বিতীয় বিয়ের গুঞ্জন শুরু হয়।

মাহির দ্বিতীয় বিয়েতে তার প্রাক্তন স্বামী শুভেচ্ছা জানালেও রয়েছে চাপা ক্ষোভ। পারভেজ মাহমুদ অপুর কথাতেই সেটি স্পষ্ট। তিনি বলেন, আর কোনো দিন মিডিয়ার মেয়ে বিয়ে করবো না। এরপর বাবা-মায়ের পছন্দে বিয়ে করবো। তাদের পছন্দে সুখ-শান্তি বেশি।

স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন ওঠে- তাহলে কি অপু-মাহির সংসার সুখের ছিল না? অপুর সঙ্গে মাহির বিয়ের পর একাধিক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেছেন এই প্রেমের শুরু হয়েছিল তার পক্ষ থেকে। প্রেমে সাড়া দিয়েছিলেন অপু। এরপর দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন দুজন। 

এক সময় মাহি শ্বশুরবাড়ির সবার প্রিয় হয়ে ওঠেন। বিশেষ করে অপুর বড় চাচা ও বাবার কলিজার টুকরো ছিলেন মাহি- এমন কথা চলচ্চিত্র পাড়ার অনেকেই জানেন। এদিকে অল্প সময়ের মধ্যেই চলচ্চিত্রে সবার কাছে প্রিয়পাত্র হয়ে ওঠেন অপু। সিলেটে তাদের বাড়িতেও গিয়েছেন ওমর সানি, মৌসুমী, রিয়াজ, সাইমন, সিয়ামসহ অনেকেই।


সব ঠিক থাকলে তাহলে কি কারণে তাদের সংসারে এমন ঝড় উঠলো? মাহি-অপু দুজনেই ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিলেন? এ প্রসঙ্গে দুজনের কেউই মুখ খোলেননি। এর পরেই দ্বিতীয় বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন মাহি। পাত্র গাজীপুরের তরুণ রাজনীতিক-ব্যবসায়ী রাকিব। আজ দুজনের বিয়ের বিষয়টি মাহি ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নিশ্চিত করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস