মুশফিকের খেলায় অস্ট্রেলিয়ার আপত্তি, ডমিঙ্গোর ক্ষোভ প্রকাশ

ঢাকা, রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৪ ১৪২৮,   ১০ সফর ১৪৪৩

মুশফিকের খেলায় অস্ট্রেলিয়ার আপত্তি, ডমিঙ্গোর ক্ষোভ প্রকাশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:১২ ১ আগস্ট ২০২১  

মুশফিকুর রহিম

মুশফিকুর রহিম

পারিবারিক কারণে জিম্বাবুয়ে সফরের মাঝপথে দেশে ফেরেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। এরপর নির্ধারিত সময়ের ভেতর কোয়ারেন্টাইনে ঢোকেননি এই অভিযোগে তার খেলার ব্যাপারে আপত্তি জানায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। অজিদের এমন আচরণে ক্ষোচ জানিয়েছেন বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

জিম্বাবুয়ে সফরে থাকাকালে বাবা-মা করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পেলে মুশফিক ওয়ানডে ও টি-২০ সিরিজ না খেলেই দেশে চলে আসেন। এদিকে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সিএ শর্ত জুড়ে দিয়েছিল, অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বাংলাদেশে পা রাখার অন্তত ১০ দিন আগেই সিরিজ সংশ্লিষ্ট সবাইকে জৈব সুরক্ষা বলয়ে ঢুকতে হবে।

নির্ধারিত সময়ের ২-৩ দিন পর মুশফিক কোয়ারেন্টাইন শুরু করতে প্রস্তুত ছিলেন। তখন জৈব সুরক্ষা বলয়ে প্রবেশ করলেও ১০ দিন কোয়ারেন্টাইনের শর্ত পূরণ করতে পারতেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল। কিন্তু অজিদের হেলথ প্রটোকল টিম মুশফিককে জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকার অনুমোদন দেয়নি। যা নিয়ে বিভিন্ন মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

করোনার ভয়ে তটস্থ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এমন আচরণের কোনো যুক্তি খুঁজে পাচ্ছেন না ডমিঙ্গো। তিনি বলেন, ‘মুশফিকের বায়ো বাবলে অন্তর্ভুক্তি নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার অদ্ভুত সিদ্ধান্তের কোনো যুক্তি আমি খুঁজে পাইনি। ১০ দিন কোয়ারেন্টাইন যে কারো জন্যই যথেষ্ট হত। আমি এটা নিয়ে অনেক হতাশ।’

মুশফিকের মতো পারিবারিক কারণ ও কোয়ারেন্টাইন জটিলতায় দলের সঙ্গে নেই লিটন দাসও। ডমিঙ্গো মনে করেন, মুশফিক বা লিটনরা দলে না থাকায় বাড়তি কোনো চাপ কাজ করবে না। বরং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মঞ্চকে সবসময় চাপ অনুভবের ক্ষেত্র বলে মনে করেন তিনি।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা বিশ্বের সেরা একটি দলের বিপক্ষে খেলব। আমাদের তরুণদের জন্য এটা নিজেদের জাত চেনানোর দারুণ এক সুযোগ। মুশফিক ও লিটনের না থাকা আমাদের জন্য বড় দুই ক্ষতি। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবসময়ই চাপ আছে, এটা নিয়েই আপনাকে খেলতে হবে।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল