যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে খেলতে চান পাকিস্তানের শতাধিক ক্রিকেটার!

ঢাকা, রোববার   ২০ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৮ ১৪২৮,   ০৮ জ্বিলকদ ১৪৪২

যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে খেলতে চান পাকিস্তানের শতাধিক ক্রিকেটার!

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:২৬ ৯ মে ২০২১  

পাকিস্তান দল

পাকিস্তান দল

পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফর্ম করেও জাতীয় দলে জায়গা পাওয়া যায় না, এ অভিযোগ অনেক পুরনো। ক্রিকেটারদের অভিযোগ এবার রূপ নিয়েছে ক্ষোভে। কিছুদিন আগে পাকিস্তান ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমিয়েছেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটার সামি আসলাম। সেখানে নতুন করে সব শুরুর অপেক্ষায় তিনি। সামির দেখাদেখি এখন পাকিস্তানের অন্তত শতাধিক প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটার এখন খেলতে চান যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে!

পাকিস্তানের হয়ে ১৩টি টেস্ট ও চারটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন সামি আসলাম। জাতীয় দলে সুযোগ না পাওয়ায় গত বছর পাকিস্তান ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান তিনি। দেশটির হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে হলে সামিকে অপেক্ষা করতে হবে আরো তিন বছর।

পাকিস্তানের এক ক্রিকেট ওয়েবসাইটকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান জানিয়েছেন বিস্ময়কর তথ্য। সামির দাবি, তার দেখাদেখি পাকিস্তান ছাড়তে চায় আরো অনেকে। এ বিষয়ে এই ব্যাটার বলেন, ‘আমি হলফ করে বলতে পারি, পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা অনেক ক্রিকেটার যুক্তরাষ্ট্রে চলে আসতে চায়। আমি তো একশোর বেশি ক্রিকেটারের ফোন পেয়েছি। তারা এখানকার খোঁজখবর নিচ্ছে। ঘরোয়া ক্রিকেটে সেরা পারফর্মাররাও এখানে আসতে ইচ্ছুক।’

ক্রিকেট খেলুড়ে দেশগুলো থেকে ক্রিকেটারদের অভিবাসনের সুবিধা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। নির্দিষ্ট সময় পর যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে খেলার অনুমোদনও মিলবে তাদের। নতুন আদলের এই উদ্যোগে ক্রিকেটারদের আর্থিক নিরাপত্তাও লোভনীয়।

সামি জানান অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটারদের আনতেও কাজ করছে তারা। পাকিস্তানিরাও কয়েকজন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেওয়ার খুব কাছে আছেন,  ‘যুক্তরাষ্ট্র এখন চাইছে অস্ট্রেলিয়ান ও দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার। তবে পাকিস্তানি এখানে আসতে চায়। কয়েকজনের চুক্তি চূড়ান্ত পর্যায়ে।’

২০১৫ সালে বাংলাদেশ সফরে টেস্ট ও ওয়ানডে অভিষেক হয় সামির। ৪ ওয়ানডের ক্যারিয়ারেই বলার মতো কিছু নেই। ১৩ টেস্টে ৩১.৭৮ গড়ে করেন ৭৫৮ রান।

২৫ বছর বয়েসি এই ক্রিকেটার জানান পাকিস্তানে বঞ্চনা, উপেক্ষার শিকার হয়েই তার এমন সিদ্ধান্ত, ‘টানা ৫-৬ মৌসুম পারফর্ম করেও নির্বাচকদের কাছে উপেক্ষিত থেকেছি। দলে নিয়ে দুই-তিন ম্যাচ খেলিয়েই বাদ হয়ে হয়েছে। কঠিন পরিস্থিতিতে পারফর্ম করেও আর ডাক পাইনি। অথচ অনেকে ১০ ম্যাচ খারাপ করলেও বাদ পড়ে না।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল