শিরোপা উৎসবে মাতল ইন্টার মিলান

ঢাকা, শনিবার   ১২ জুন ২০২১,   জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪২৮,   ০১ জ্বিলকদ ১৪৪২

শিরোপা উৎসবে মাতল ইন্টার মিলান

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:১৫ ৯ মে ২০২১  

ইন্টার মিলান   -ফাইল ফটো

ইন্টার মিলান -ফাইল ফটো

সফরকারী সাম্পদরিয়াকে ৫-১ গোলে হারিয়ে সিরি আ লিগের শিরোপা উৎসবে মেতে উঠেছিল ইন্টার মিলান। এটি ছিল ঘরের মাঠে এন্টনিও কন্টের শিষ্যদের টানা ১৪তম রেকর্ড জয়।

শনিবার সান সিরো স্টেডিয়ামের বাইরে সমবেত হয়ে শিরোপা উৎসব শুরু করে ইন্টার মিলানের হাজার হাজার সমর্থক।

করোনা মহামারির কারণে দর্শকশুন্য মাঠেই অনুষ্ঠিত হয়েছিল সিরি আ লিগের ম্যাচটি। কিন্তু সান সিরোরর বাইরে সমবেত হয়ে ঠিকই উৎসব শুরু করে হাজার হাজার ‘নেরাজ্জুরি’ সমর্থক। 

ম্যাচ শেষে ইন্টারের কোচ কন্টে বলেন, এর তৃপ্তি অপরিসীম। দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পর আমরা এই সফলতা অর্জন করেছি। সুতরাং সবাই যে বেপরোয়া ভাবে এর উৎসব করবে সেটাই স্বাভাবিক। তাদের জন্য এই জয় এনে দিতে পেরে আমরা খুবই খুশি।

নতুন চ্যাম্পিয়ন মুকুট লাভ করায় মাঠেই ইন্টার মিলানকে ‘গার্ড অব অনার’ প্রদান করে সাম্পদোরিয়ার খেলোয়াড়রা। এটি ছিল ইন্টার মিলানের ১৯তম ‘স্কুডেত্তো’ এবং ২০১০ সালের পর প্রথম লিগ শিরোপা।

পয়েন্ট তালিকার নবম অবস্থানে থাকা ক্লদিও রানিয়েরির দলের হয়ে ৩৫ মিনিটে কেইটা বালদে একটি গোলের শোধ দিলেও প্রতিহত করতে পারেনি ইন্টার মিলানের শিরোপা জয়। 

রানিয়েরি বলেন, উইং দিয়ে ইন্টার দারুন উজ্জীবিত ছিল। তারা অসাধারণ ম্যাচ খেলেছে।

২০১৬ সালে লিস্টারকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা পাইয়ে দেয়া এই কোচ আরো বলেন, তার এই জেনোয়া দল গার্ড অব অনার দিয়ে এই অনুষ্ঠানকে স্মরনীয় করে তোলার চেস্টা করেছে। 

তিনি বলেন, আমি খেলোয়াড়দের বলেছি, ইংল্যান্ডে যেমনটি করেছিলাম সে রকম ভাবে এই উৎযাপনে যুক্ত হতে পারলে দারুন হবে। সঙ্গে সঙ্গেই তারা এতে সম্মত হয়।

এদিন ইন্টারের সর্বোচ্চ গোলদাতা রোমেলু লুকাকু সহ শীর্ষস্থানীয় বেশ ক’জন খেলোয়াড় সাইডলাইনে কোচ কন্টের পাশে বসেই ম্যাচটি উপভোগ করেছেন। মৌসুম জুড়ে যারা অপেক্ষাকৃত কম ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছে তাদেরকেই গতকালের ম্যাচে সুযোগ দিয়েছিলেন কন্টে।

ম্যাচের চতুর্থ মিনিটেই অ্যাশলে ইয়ংয়ের ক্রসের বল থেকে গোল করে ইন্টারকে এগিয়ে দেন রবার্তো গ্যাগলিয়ার্দিনি। প্রথমার্ধেই ১০ মিনিটের ব্যবধানে পরপর গোল করে ইন্টারকে চালকের আসনে বসিয়ে দেন অ্যালেক্সিস সানচেজ। ২৬ ও ৩৬ মিনিটে গোল দুটি করেন তিনি। এরই ফাঁকে অবশ্য সফরকারী দলের হয়ে ৩৫ মিনিটে একটি গোল পরিশোধ করেন বালদে।

বিরতির পর ম্যাচের বয়স যখন ঘন্টার কাঁটা অতিক্রম করছিল তখন ইন্টারের হয়ে ফের গোল করেন বদলি হিসেবে আসা আন্দ্রেয়া পিনামন্টি। শেষ বাঁশি বাজার ২০ মিনিট আগে পেনাল্টি থেকে গোল করে ইন্টারের বড় জয় সম্পন্ন করেন লটারো মার্টিনেজ ।

লিগে সর্বশেষ সাম্পদোরিয়ার কাছে পরাজিত হয়েছিল ইন্টার মিলান। এরপর টানা ১৮ ম্যাচে কোন হার নেই কন্টের শিষ্যদের। আর গতকালের এই জয়টি ছিল ঘরের মাঠে প্রথমবারের মত তাদের টানা ১৪তম জয়।

কন্টে বলেন, আমরা একনাগারে আলাদা কিছু করে গেছি। ৮৫ পয়েন্ট লাভ করেছি এবং সাম্পদোরিয়ার কাছে হারের পর আর পরাজিত হইনি। ছেলেরা একের পর এক আমাদের মুগ্ধ করে গেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস