টানা নবম বুন্দেসলিগা শিরোপা নিশ্চিত করেছে বায়ার্ন

ঢাকা, রোববার   ২০ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৮ ১৪২৮,   ০৮ জ্বিলকদ ১৪৪২

টানা নবম বুন্দেসলিগা শিরোপা নিশ্চিত করেছে বায়ার্ন

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:১৩ ৯ মে ২০২১  

বায়ার্ন মিউনিখ

বায়ার্ন মিউনিখ

বরুশিয়া ডর্টমুন্ড টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থাকা আরবি লিপজিগকে ৩-২ গোলে পরাজিত করায় টানা নবম মৌসুমে বুন্দেসলিগা শিরোপা নিশ্চিত হয়েছে বায়ার্ন মিউনিখের। ইংলিশ উইঙ্গার জেডন সানচোর দুই গোলে ঘরের মাঠ সিগন্যাল ইডুনা পার্কে ডর্টমুন্ডে জয় নিশ্চিত হয়। 

শনিবার বরুনিয়া মনচেগ্লাডবাখের বিপক্ষে ম্যাচের আগেই বায়ার্নের চ্যাম্পিয়নশিপ নিশ্চিত হয়। ঐ ম্যাচটির আগে ৩১ ম্যাচে ৭১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান সুসংহত করেছিল বায়ার্ন। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিপজিগের সংগ্রহ ৬৪ পয়েন্ট। পরবর্তী রবার্ট লিওয়ানদোস্কির হ্যাটট্রিকে মনচেনগ্লাডবাখকে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত করে ঘরের মাঠ আলিয়াঁজ এরিনাতে শিরোপা জয় উৎসব করেছে বেভারিয়ান্সরা ।

লিপজিগকে হারানোর ফলে ডর্টমুন্ডের ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে। কিন্তু দুই পয়েন্ট পিছিয়ে থাকা এইনট্র্যাক ফ্রাংকফুর্টের সামনে এখনো সুযোগ আছে ডর্টমুন্টকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের স্থান থেকে সড়িয়ে দেয়ার।

তারকা স্ট্রাইকার আর্লিং ব্রট হালান্ডের অনুপস্থিতিতে ডর্টমুন্ড মার্কোরিউস ও সানচোর গোলে ৫১ মিনিটে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গিয়েছিল। লুকাস ক্লোস্টারম্যানের হেড ও ডানি ওলমোর গোলে লিপজিগ ৭৭ মিনিটে দারুনভাবে ম্যাচে ফিরে আসে। ম্যাচ শেষের তিন মিনিট আগে সানচোর দুর্দান্ত গোলে লিপজিগের জয় নিশ্চিত হয়। থাইয়ের ইনজুরির কারণে কাল স্ট্যান্ডে বসেই হালান্ডকে ম্যাচটি উপভোগ করতে হয়েছে।
আগামী বৃহস্পতিবার এই দুটি ক্লাব বার্লিন অলিম্পিক স্টেডিয়ামে জার্মান কাপের ফাইনালে আবারো একে অপরের মোকাবেলা করবে।

ম্যাচের ৭ মিনিটে থ্রোগান হ্যাজার্ডের ব্যাক-হিলে রেয়াস লিপজিগ গোলরক্ষক পিটার গুলাসিকে পরাস্ত করলে এগিয়ে যায় ডর্টমুন্ড। ডর্টমুন্ড গোলরক্ষক মারউইন হিটজ দ্বিতীয়ার্ধে ইনজুরির কারণে আর খেলতেপ পারেননি। তার স্থানে রোমান বুয়েরকি বিরতির পর ডর্টমুন্ডের গোলপোস্ট আগলে রেখেছিলেন। বিরতির পর ৬ মিনিটের মধ্যেই রাফায়েল গুয়েরেইরোর পাসে সানচো ব্যধান দ্বিগুন করেন। ৬৩ মিনিটে এমিল ফর্সবার্গেও ফ্লোটেড কর্ণারে ক্লোস্টারমান হেডের সাহায্যে বুয়েরকিকে পরাস্ত করেন। দক্ষিণ কোরিয়ান স্ট্রাইকার হোয়াং হি-চানের এসিস্টে ওলমো লিপজিগকে ৭৭ মিনিটে সমতায় ফেরান। ৮৭ মিনিটে সানচোর দ্বিতীয় গোলে দারুন এক জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে ডর্টমুন্ড।

এদিকে নিজেদের মাঠে শিরোপা নিশ্চিতের সুখবর নিয়েই মাঠে নেমেছিল বায়ার্ন। পুরো ম্যাচে তারা দারুন আধিপত্য দেখিয়েছে। ১৯৬৩ সালে জার্মানীর শীর্ষ লিগ শুরু হবার পর এনিয়ে বেভারিয়ান্সরা ৩১টি জার্মান লিগ ও ৩০টি বুন্দেসলিগা শিরোপা জয় করার কৃতিত্ব দেখালো। ২০২১ সালের শুরুতে ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা জয় করার মাধ্যমে ২০১৯-২০ মৌসুম থেকে ষষ্ঠ শিরোপা জয় করলো বায়ার্ন।

লিওয়ানোদোস্কির হ্যাটট্রিক ছাড়াও ম্যাচে আরো গোল করেছেন থমাস মুলার, কিংসলে কোম্যান ও লেরয় সানে। এ নিয়ে ৩২ লিগ ম্যাচে ৩৯টি গোল করেছেন পোলিশ তারকা লিওয়ানদোস্কি। ১৯৭১-৭২ মৌসুমে সাবেক স্ট্রাইকার গার্ড মুলার সর্বকালের সর্বোচ্চ ৪০ গোল করেছিলেন যা ছাড়িয়ে যাবার দ্বারপ্রান্তে রয়েছে লিও।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস