নারী কেলেঙ্কারিতে ফেঁসেছেন আর্জেন্টিনার ‘গোপন অস্ত্র’ পাভন

ঢাকা, শনিবার   ০৬ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ২২ ১৪২৭,   ২১ রজব ১৪৪২

নারী কেলেঙ্কারিতে ফেঁসেছেন আর্জেন্টিনার ‘গোপন অস্ত্র’ পাভন

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:৫১ ১১ জানুয়ারি ২০২১  

ছবিতে ক্রিস্টিয়ান পাভনের সঙ্গে ম্যারিসোল ডয়েল। যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছেন তিনিই

ছবিতে ক্রিস্টিয়ান পাভনের সঙ্গে ম্যারিসোল ডয়েল। যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছেন তিনিই

আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ান পাভনকে নিয়ে যেন আলোচনা-সমালোচনার শেষ নেই। বোকা জুনিয়র্সের হয়ে দারুণ পারফর্ম্যান্স দেখানো এ ফুটবলার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার ‘গোপন অস্ত্র’ হয়ে উঠবেন বলে দাবি করেছিল ইএসপিএন। অথচ তার বর্তমানটা ঠিক ভালো যাচ্ছে না। আগামী মৌসুমের ক্লাব পাওয়া নিয়ে দেখা দিয়েছে শঙ্কা।

এমন পরিস্থিতিতে আরো বড় ধাক্কা খেয়েছেন পাভন। যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে ২৪ বছর বয়সী এ ফরোয়ার্ডের বিরুদ্ধে। অভিযোগকারী সেই নারী বোকা জুনিয়র্স ও ক্রিস্টিয়ান পাভনের ভক্ত। নিজের সঙ্গে হওয়া অন্যায়ের বিচার চেয়েছেন তিনি। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পাভন।

ম্যারিসোল ডয়েল নামে ওই নারী দাবি করেছেন, কয়েক বছর আগে করদোবায় অবস্থানকালে তাকে যৌন নিপীড়ন করেছেন বোকা জুনিয়র্স ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ান পাভন। এতদিন চুপ থাকলেও ভেতরে ভেতরে এ ঘটনা কুরে কুরে খাচ্ছিল তাকে। তাই আর চুপ করে থাকেননি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিচার চেয়েছেন। টিএনটি স্পোর্টস প্রথম সেই পোস্ট দেখে পাভনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির এ অভিযোগ সবার সামনে তুলে ধরে।

ডয়েল তার পোস্টে লিখেছিলেন- এই ব্যক্তি এই ক্লাবে খেলার অধিকার রাখে না। সে যে বাজে কাজ করেছে, এর জবাব দিতে হবে। বিচারের কথায় তাদের কানে কি তালা লেগেছে? এক বছর আগে অনেক সমস্যার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে আমাকে। আমি যে অত্যাচারের মধ্য দিয়ে গিয়েছি, সেটা থেকে সুস্থ হওয়ার চেষ্টা করছি এবং যে ক্লাবের ভক্ত আমি, তাদের কাছে বিচার চাইছি। তাদের উচিত এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া। আমি আর এমন ভণ্ডামি মেনে নিতে পারছি না। আমি আশা করি এবং বিশ্বাস করি, তারা এমন আচরণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

বোকা জুনিয়র্সের মতো ক্লাবের খেলোয়াড় পাভন। বিশ্বকাপেও খেলেছেন। এমন এক তারকার বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলায় তার যে ক্ষতি হতে পারে, এ ভয়ও ছিল ডয়েলের মনে। ধীরে ধীরে নিজের সে অসহায় অবস্থা কাটিয়ে উঠেছেন। এখন বিচারের দাবিতে যেকোনো কিছু করতে প্রস্তুত তিনি।

ডয়েল আরো লিখেছিলেন- সে ঘটনার পর আমি খুব ভয়ে ছিলাম। বদলা নেয়ার ভয়। আমি জানতাম সে অনেক বিখ্যাত খেলোয়াড় এবং আমি আমার শহরে ফেরার সিদ্ধান্ত নিই। যত দিন গেছে, সবকিছু আরো কঠিন হয়েছে। এখন আমি আবার নিজেকে ফিরে পেয়েছি এবং এখন সঠিক বিচারের জন্য যা দরকার, সেগুলো করতে প্রস্তুত আমি।

যৌন হয়রানির অভিযোগ খুব গুরুত্বের সঙ্গেই দেখা হচ্ছে এখন। কিছুদিন আগেই সান্তোসে ফিরেছিলেন রবিনহো। কিন্তু ব্রাজিলিয়ান এ ফুটবলারইতালিতে ধর্ষণের অভিযোগে শাস্তি পাওয়ার ঘটনা জানার পরও এমন সিদ্ধান্তে সমাজকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছিলেন। পরে ক্লাবের আর্থিক দুর্দশার মধ্যেও প্রায় মুফতে রবিনহোকে খেলানোর সুযোগ পেয়েও সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছিল ক্লাবটি। বোকা জুনিয়র্স কিংবা পাভনকে পেতে আগ্রহী এলএ গ্যালাক্সিও এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

পাভন তাই ইনস্টাগ্রামে বেশ বড় এক পোস্ট করেছেন। নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের বিরুদ্ধে দেয়া আইনি জবাবটাই তুলে ধরেছেন। সেখানে লেখা হয়েছে, জনাব পাভনের বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগ মিথ্যা। এ কারণে এই মিথ্যা অভিযোগের বিরুদ্ধে এই মামলার কৌঁসুলির কাছে সময়মতো প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

ফুটবলের বৈশ্বায়নের যুগে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার নতুন প্রতিভাদের তো বয়স ১৮ হওয়ার আগেই এখন টেনে নিতে চায় ইউরোপের ক্লাবগুলো। সারাবিশ্বের ফুটবলারদের ওপর নজর রাখার জন্য বড় স্কাউট দল সৃষ্টি করে রাখা হয়েছে। ফলে বিশ্বকাপের মতো মঞ্চে এখন আর পেলের মতো ১৭ বছর বয়সী কারো এসেই তাক লাগিয়ে দেয়ার সম্ভাবনা প্রায় শূন্য।

বিশ্বকাপের আগে ইউরোপে পরিচিত মাউরো ইকার্দিকে না নিয়ে পাভনকে নেওয়ায় তাই বেশ উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। কিন্তু হোর্হে সাম্পাওলির সে জুয়া কোনো কাজে লাগেনি। বিশ্বকাপে খুব কমই সুযোগ পেয়েছেন। আর সে সুযোগগুলোও কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়েছেন পাভন। আর্জেন্টিনার জার্সিতে ১১টি ম্যাচ খেলা পাভন ২০১৮ সালের পর থেকে সেই যে পথ হারালেন, আর পথের দিশা পাননি।

মাঝে যুক্তরাষ্ট্রের মেজর লিগ সকারে (এমএলএস) খেলতে গিয়েছিলেন। এক বছর পর আবার ফিরেছেন বোকায়। এখন ২০২২ সাল পর্যন্ত বোকায় থাকবেন কি না, সেটারও ঠিক নেই।

এক বছর বিরতি দিয়ে বোকা জুনিয়র্সে ফিরে দেখছেন, সেখানে আক্রমণভাগে প্রতিদ্বন্দ্বিতা আরও বেড়েছে। মূল একাদশে তাকে নামানোর সম্ভাবনা খুব কম। তাই আবার এমএলএসে ফেরার চেষ্টা করছেন। এর মাঝেই আইনি ঝামেলা নিয়ে মাথা ঘামাতে হচ্ছে ক্রিস্টিয়ান পাভনকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর