তিন বার পিছিয়ে পড়েও মিলানকে জিততে দিলো না রোমা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৭,   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

তিন বার পিছিয়ে পড়েও মিলানকে জিততে দিলো না রোমা

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৪৩ ২৭ অক্টোবর ২০২০  

মিলানকে জিততে দিলো না রোমা

মিলানকে জিততে দিলো না রোমা

সিরি আ লিগে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে তিন বার পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত এসি মিলানকে জিততে দেয়নি রোমা। মিলানের মাঠে আত্মবিশ্বাসী রোমা ৩-৩ গোলে স্বাগতিকদের রুখে দিয়েছে। 

সোমবারের ম্যাচে দুই দলের পক্ষেই দুটি বিতর্কিত পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষুব্ধ হতে দেখা গেছে খেলোয়াড়দের। মিলানের পক্ষে জোড়া গোল করেছেন জ্বালাত্বন ইব্রাহিমোভিচ। এর মাধ্যমে নতুন মৌসুমে পঞ্চম ম্যাচে এসে প্রথমবারের মত পয়েন্ট হারালো সিরি-আ টেবিলের শীর্ষে থাকা এসি মিলান।

৩৯ বছর বয়সী সুইস তারকা ইব্রাহিমোভিচ এ নিয়ে তিন ম্যাচে ৬ গোল করলেন। কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ায় এর মধ্যে তিনি দুটি ম্যাচ খেলতে পারেননি।

ইব্রাহিমোভিচ ছাড়াও এ্যালেক্সিস সালেমেকার্স মিলানের হয়ে দ্বিতীয় গোলটি করেছেন। অন্যদিকে রোমার হয়ে গোলগুলো পরিশোধ করেছেন এডেন জেকো, জর্ডান ভেরেটুট ও মারাশ কুমবুলা।

নাপোলি ও সাসুলোর চেয়ে দুই পয়েন্ট এগিয়ে পাঁচ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে মিলান। সমান সংখ্যক ম্যাচে ৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করা রোমার অবস্থান নবম।

ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই গোল করে মিলানকে উড়ন্ত সূচনা এনে দিয়েছিলেন ইব্রাহিমোভিচ। রাফায়েল লিয়াও রোমার রক্ষনভাগের উপর দিয়ে ইব্রার উদ্দেশ্যে বল চিপ করে দেন। সুইস স্ট্রাইকার ডান পায়ের জোড়ালো শটে রোমা গোলরক্ষক এন্টোনিও মিরান্টেকে পরাস্ত করলে এগিয়ে যায় মিলান। যদিও মিলানের এই লিড বেশীক্ষন স্থায়ী হয়নি।

১৪ মিনিটে কর্ণার থেকে মিলানের অভিষিক্ত গোলরক্ষক সিপরিয়ান টাটারুসানো বল ধরতে ব্যর্থ হলে জেকোর হেড রোমার পক্ষে সমতা ফেরায়।  দলের নিয়মিত গোলরক্ষক গিয়ানলুইগি ডোনারুমা কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ায় কাল শেষ মুহূর্তে মূল একাদশে জায়গা করে নেন অলিম্পিক লিঁও থেকে এবারের মৌসুমে দলে আসা রোমানিয়ান গোলরক্ষক টাটারুসানো।

বিরতির দুই মিনিট পর আবারো লিয়াওর সহায়তায় এগিয়ে যায় মিলান। বামদিক থেকে তার বাড়ানো বলে সালেমেকার্স ৪৭ মিনিটে মিলানকে এগিয়ে দেন। ৭১ মিনিটে বিতর্কিত একটি পরিস্থিতি থেকে রোমা দ্বিতীয়বারের মত সমতা ফেরায়। মিলানের ডি বক্সে একটি লুজ বল ধরতে গিয়ে ইসমায়েল বেনাকার ও পেড্রোর মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়। রেফারি রোমার পক্ষে পেনাল্টির নির্দেশ দেন।

যদিও বিতর্কিত এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেছিল স্বাগতিক খেলোয়াড়রা। কিন্তু কার্যত তাতে কোন কাজ হয়নি। স্পট কিক থেকে ভেরেটুট রোমার হয়ে সমতা ফেরান। আট মিনিট পর মিলানও একটি পেনাল্টি উপহার পায়। রোমা ডিফেন্ডার গিয়ানলুকা মানচিনির বিপক্ষে পেনাল্টি আদায় করে নেন হাকান কালহানুগ্ল। স্পট কিক থেকে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন ইব্রাহিমোভিচ। ৮৪ মিনিটে আরো একটি কর্ণার থেকে পোস্টের খুব কাছে থেকে বল জালে জড়ান কুমবুলা। আর এতেই রোমার এক পয়েন্ট নিশ্চিত হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস