সন্তানসম্ভবা প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করে জেলে যাচ্ছেন রিয়াল তারকা!

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৪ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১০ ১৪২৭,   ০৭ রবিউস সানি ১৪৪২

সন্তানসম্ভবা প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করে জেলে যাচ্ছেন রিয়াল তারকা!

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:২৯ ২৩ অক্টোবর ২০২০  

লুকা জোভিচ ও তার প্রেমিকা সোফিজা মিলোসেভিচ

লুকা জোভিচ ও তার প্রেমিকা সোফিজা মিলোসেভিচ

রিয়াল মাদ্রিদের সার্বিয়ান ফরোয়ার্ড লুকা জোভিচের সঙ্গে যেন বিতর্কের কোনো ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক আছে। মাঠের খেলার চেয়ে বাইরের ঘটনাতেই খবরের শিরোনামে বেশি আসেন তিনি। আরো একবার ঝামেলার মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন এই ফুটবলার। নিজ দেশ সার্বিয়ার করোনাভাইরাস প্রটোকল ভেঙ্গে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করায় ছয় মাসের জেল হতে পারে তার।

২০১৯ সালে আইনট্রাখট ফ্রাংকফুট থেকে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেন জোভিচ। গত মার্চে করোনাভাইরাসের কারণে পুরো রিয়াল মাদ্রিদ স্কোয়াড কোয়ারেন্টাইনে ছিল। তবে সে সময় দলের সঙ্গে না থেকে তিনি ফিরে গিয়েছিলেন দেশে।

সার্বিয়ার প্রসিকিউটর অফিস থেকে জানানো হয়েছে, কঠিন সেই সময়ে দেশে আসলেও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মানেননি লুকা জোভিচ। ফলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে কোন আইন অনুসরণ করা হবে সে ব্যাপারে শুক্রবার সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, শাস্তি থেকে বাঁচার জন্য এরই মধ্যে ৩০ হাজার ইউরো বা ত্রিশ লাখ টাকার বেশি জরিমানা দিয়েছেন জোভিচ। তবে এসবে কাজ হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। সার্বিয়ান প্রসিকিউটররা স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করার অপরাধে এই তারকার ছয় মাসের জেলের আবেদন করবেন।

মূলত জোভিচ নিজের সন্তানসম্ভবা প্রেমিকাকে দেখতে স্পেন ছেড়ে সার্বিয়ায় আসাতেই সব সমস্যার শুরু। দেশে ফিরে তিনি করোনাবিধি মান্য করলেই আর কোনো ঝামেলায় পড়তে হতো না। কিন্তু কোয়ারেন্টাইনে না থেকে ৩০ বছর বয়সী প্রেমিকা সোফিজা মিলোসেভিচকে নিয়ে তিনি সার্বিয়ার রাজধানী বেলগ্রেডের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে যান। 

ছবিগুলো বাইরে না এলে হয়তো কেউ জানতেও পারতো না তার কীর্তি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসব ছবি আসার পরই সমস্যার সুত্রপাত। তবে লুকা জোভিচের বাবা মিলান দাবি করেছেন, তার ছেলে ও সন্তানসম্ভবা প্রেমিকার ছবিগুলো মূলত স্পেনে তোলা। অবশ্য মার্চে যে জোভিচ দেশে ফিরেছেন, সেটি স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি। 

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কায় মিলান বলেন, ‘লুকার দুইবার করোনা পরীক্ষা করানো হয় এবং প্রতিবারই নেগেটিভ আসে। এই কারণে সে ভেবেছিল সার্বিয়ায় ফিরতে সমস্যা নেই। কিন্তু এখন তো দেখা যাচ্ছে এটা গুরুতর অপরাধ হয়ে গেছে। তাকে যদি জেলে যেতে হয় তাহলে যাবে। সার্বিয়ার বিচারব্যবস্থার প্রতি আমার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। তবে ও যে আসলেই দোষী সেটা প্রমাণিত হতে হবে।’

তিনি আর বলেন, ‘সে (জোভিচ) যদি কোনো ভুল করে থাকে তাহলে আমি এ (ছয় মাসের জেল) সিদ্ধান্ত মেনে নেবো। কিন্তু সে বেলগ্রেড পৌঁছে বাড়িতেই থেকেছে। আপনারা জানেন ওর প্রেমিকা এখন সন্তানসম্ভবা। জন্মদিন পালন করতে বাইরে যেতেই পারি। কিন্তু সম্প্রতি তাদের কিছু ছবি বেরিয়েছে, সেগুলো আসলে স্পেনে থাকতেই তোলা।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল