‘বার্সাই শুধু আমাকে দেয়নি, আমিও বার্সার স্বার্থে সারাজীবন খেলেছি’

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৮ ১৪২৭,   ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

‘বার্সাই শুধু আমাকে দেয়নি, আমিও বার্সার স্বার্থে সারাজীবন খেলেছি’

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:১৭ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বার্সেলোনার এখনো অনেক ট্রফি জেতার সামর্থ্য আছে। বার্সার জন্যই আমি সারাজীবন খেলেছি। শুধু বার্সা আমাকে দিয়েছে বিষয়টি সত্য নয়। বার্সার সঙ্গে তার থাকা না থাকা নিয়ে কানাঘুষার এখনই ইতি চান তিনি। চলতি মৌসুমে মাঠে নামার পর প্রথম গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি। 

স্প্যানিশ পত্রিকা ‘স্পোর্টসকে দেয়া সেই সাক্ষাৎকারে এমনটাই বলেন মেসি।

পারফরমেন্সের দোহাই দিয়ে প্রিয় বন্ধুকে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে অন্যের ঘরে। আফসোস আরো ভারী হয় যখন অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে সুয়ারেজ উদ্বোধনী ম্যাচে জোড়া গোল করে। মেসির সঙ্গে আলোচনা না করেই নাকি কাতালান দূর্গ ইচ্ছেমত কাটা-ছেঁড়া করা হয়েছে।   

মেসি বার্সা ছাড়ছেন। মেসিকে বুকে আগলে রাখা কাতালান ক্লাবটাকে নাকি বিপদে রেখে পাড়ি দিচ্ছেন নতুন ঠিকানায়। সমালোচকদের এমন মন্তব্যের এবার দাঁত ভাঙ্গা জবাব দিলেন মেসি। বার্সার হয়ে চলতি মৌসুমে মাঠে নামার পর প্রথম গণমাধ্যমের মুখোমুখি হলেন মেসি। স্প্যানিশ পত্রিকা 'স্পোর্ট'কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, বার্সাকে নিজের সবটা উজাড় করে দিয়েছেন।   

লিওনেল মেসি বলেন, আমি সবসময় বার্সার স্বার্থের জন্যই খেলেছি। শুধু বার্সা আমাকে দিয়েছে বিষয়টি এমন না। অনেকেই অনেক কথা বলতে পারে। আমি শুধু বলতে চাই, আমি এই ক্লাবটার জন্যই সারা জীবন খেলেছি। যদি কোনো ভুল করে থাকি তবে তার দায় অবশ্যই আমি নিব। এটা হয়তো আমাকে আরও যোগ্য করে গড়ে তুলবো।

সম্পর্ক নাকি অনেকটা কাচের মত। ভেঙে যাবার পর জোড়া লাগালেও দাগ থেকে যায়। মেসি-বার্তামেয়োর দ্বন্দ্ব গিয়ে ঠেকেছে আদালত পর্যন্ত। বার্সেলোনাকে অনেকে বলেন 'মোর দ্যান এ ক্লাব'। এই ঘটনায় ক্লাবের ভাবমূর্তি বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে নষ্ট হয়েছে। তবে লিওনেল মেসি এখনই এসবের ইতি চান।  

মেসি আরও বলেন, ‘অনেক বেশি কানাঘুষা হয়েছে আমাদের নিয়ে। এগুলোর আপাতত অবসান চাই। আমি মনে করি আমাদের এখনো অনেক কিছু দেবার আছে। বার্সার হয়ে অনেক গুলো ট্রফি জেতার আছে। দলের মধ্যে কোনো বিভক্তি নয়। একতাই আমাদের উদ্দেশ্য পূরণে সহায়তা করতে পারে। সেজন্য আমরা শুধু সঠিক দিক নির্দেশনা চাই।থ
                                                                                       
এদিকে, জোর গুঞ্জন লা লিগার গ্রীষ্মকালীন দলবদলেই নাকি নতুন ঠিকানায় পাড়ি দিতে পারেন এলএম টেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ