৫০০ মিলিয়ন টাকা হলেই দলে নেয়া যাবে জামাল ভুঁইয়াকে!

ঢাকা, সোমবার   ২৬ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১২ ১৪২৭,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

৫০০ মিলিয়ন টাকা হলেই দলে নেয়া যাবে জামাল ভুঁইয়াকে!

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০৭ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:১২ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

জামাল ভূঁইয়া

জামাল ভূঁইয়া

বাংলাদেশের ফুটবলের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপনের নাম জামাল ভূঁইয়া। লাল সবুজের প্রতিনিধিদের অধিনায়ক শুধু বাংলাদেশ নন, দক্ষিণ এশিয়ারও বিজ্ঞাপন। মাঠে খেলার পাশাপাশি বর্তমানে লা লিগায় ধারাভাষ্যের কাজ করছেন এই মিডফিল্ডার। সেখানেই নিজের সম্ভাব্য বাই আউট ক্লজের অর্থের পরিমাণ অর্থাৎ তাকে কিনতে কোনো ক্লাবের কত টাকা প্রয়োজন সেটি জানিয়েছেন তিনি।

জামাল ভূঁইয়াকে দলে পেতে গত বছর ভারত থেকে প্রস্তাব এসেছিল। তবে জামাল নিজেই সেখানে না করে দিয়েছেন। বাংলাদেশের ফুটবলে সাধারণত বাই আউট ক্লজ প্রক্রিয়া নেই বললেই চলে। তবে বাস্তবেই এই প্রথা চালু থাকলে তাকে দলে নিতে কোন ক্লাবকে কমপক্ষে ৫০০ মিলিয়ন টাকা অর্থাৎ ৫০ কোটি খসাতে হবে বলে মনে করেন ৩০ বছর বয়সী এই ফুটবলার। স্প্যানিশ লা লিগায় রিয়াল বেটিস ও রিয়াল মাদ্রিদের মধ্যকার ম্যাচ শুরুর আগে ধারাভাষ্যকালে ফেসবুক লাইভে এক প্রশ্নের জবাবে এই দাবি করেছেন তিনি।

ম্যাচ পূর্ব আলোচনায় প্রসঙ্গ উঠেছিল খেলোয়াড়দের বাই আউট ক্লজ নিয়ে। রিয়ালের ফরাসি ফরোয়ার্ড করিম বেনজেমার ‘এক বিলিয়ন ইউরো’ বাই আউট ক্লজ নিয়ে আলোচনার এক পর্যায়ে এক ফুটবল সমর্থক ফেসবুক লাইভেই জামাল ভূঁইয়ার কাছে তার বাই আউট ক্লজ কত হতে পারে তা জানতে চান। এই প্রশ্নের জবাবে জামাল ভূঁইয়া পাঁচ আঙুল তুলে জানান, তাকে কিনতে ৫ শ’ মিলিয়ন টাকা ব্যয় করতে হবে। কোটির হিসেবে যা হবে ৫০ কোটি টাকা। 

তার উত্তর শোনার পর পাশে থাকা জো মরিসন কিছুটা হেসে মজা করেই জামালকে খোঁচা দিয়ে বলেন, ‘তিন সমুচাই যথেষ্ট’। জামালকে এর আগে জো জিজ্ঞেস করেছিলেন, এক বিলিয়ন বাই আউট ক্লজে তিনি কোন প্লেয়ারকে বাছাই করবেন। তার জবাবে জামাল জানান, ‘এক বিলিয়ন ইউরো দিয়ে বাই আউট ক্লজ কেনার ক্ষেত্রে এই দামের কাছাকাছি থাকবে এমবাপ্পে। কারণ সে এখনো অনেক তরুণ। এই ফরাসি স্ট্রাইকার অনেক কিছু জিততে চায় ও সেই সুযোগ আছে। আরেকজনের কথা বললে সে হবে মেসি। চমৎকার একজন ফুটবলার সে।’

বাই আউট ক্লজ অনুযায়ী করিম বেনজেমাকে রিয়ালের কাছ থেকে নিতে গুনতে হবে ১ বিলিয়ন ইউরো (প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা)। ৮০০ মিলিয়ন ইউরো বাই-আউট ক্লজ নিয়ে তার পরই আছেন বার্সেলোনার আন্তোনিও গ্রিজম্যান। সেরা পাঁচের এই তালিকায় তিনে আছেন লুকা মদরিচ। রিয়াল মাদ্রিদ এই ক্রোয়েশিয়ান তারকার বাই আউট ক্লজ রেখেছে ৭৫০ মিলিয়ন ইউরো। 

রিয়াল মাদ্রিদেরই আরেক ফুটবলার ইব্রাহিম ডায়াজ আছেন চারে। মডরিচের সমান তার বাই আউট ক্লজও ৭৫০ মিলিয়ন ইউরো। তালিকার পাঁচে আছেন লিওনেল মেসি। বার্সা থেকে মেসিকে দলে পেতে যেকোন দলকে ৭০০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করতে হবে। অবশ্য পরের মৌসুমেই ছয় বারের ব্যালন ডি অর জয়ীর এই ক্লজ ফ্রি হচ্ছে। অর্থাৎ কোনো খরচ ছাড়াই তাকে ফ্রি ট্রান্সফারে যে কোন দল নিতে পারবে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল