দুঃসাহসী নাপিত, হাতুড়ি দিয়ে কাটছেন চুল

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৩ আগস্ট ২০২১,   শ্রাবণ ১৯ ১৪২৮,   ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

দুঃসাহসী নাপিত, হাতুড়ি দিয়ে কাটছেন চুল

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:০৬ ১৯ মার্চ ২০২১  

দুঃসাহসী এক নাপিত। ভয়ংকর অভিনব তার চুল কাটার পদ্ধতি। কখনো চুলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে, কখনো বা মাংস কাটার বড় ছুরি আর হাতুড়ি দিয়ে, কখনো বা আবার বড় ধারালো কাচের টুকরো দিয়ে তাদের চুল কাটার কাজ করে চলেন আপন মনে।

এমনই এক অভিনব কেরামতিতে গ্রাহকদের চুল কেটে আসছেন পাকিস্তানের লাহোর শহরের আলি আব্বাস। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিডিওতে আব্বাসের হাতের কাজ দেখা যায়।

আব্বাস তার গ্রাহকদের মধ্যে নারী-পুরুষ ভেদাভেদ নেই। শুধু আছে প্রথমবার আসা গ্রাহক এবং নিয়মিত গ্রাহকদের তফাত। তবে এই দুই দলই আব্বাসকে দিয়ে চুল কাটানোর ব্যাপারটা দারুণ ভাবে উপভোগ করেন। লাহোরে আসা বিদেশিরাও যে এই অভিনব হেয়ার কাটিংয়ের রোমাঞ্চ গ্রহণ করতে পিছ-পা হন না, তা আব্বাসের সেলুনে নিয়মিত বিদেশি গ্রাহকদের আনাগোনা প্রমাণ করে দেয়। সম্প্রতি তার সেলুনে গ্রাহকের ভিড় উপচে পড়ে লক্ষ্য করা গেছে।

এর আগে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম আব্বাসের এই কীর্তিকলাপ তুলে ধরে। তারপর থেকেই রীতিমতো বিখ্যাত হয়ে গিয়েছেন তিনি। তাছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিডিওতে আব্বাসের হাতের কাজ দেখে প্রথমটায় একটু বুক কেঁপে উঠতে পারে কিন্তু তার পরেই তার হাতের গুণ দেখে এক ছুটে চুল কাটতে যেতে ইচ্ছে করবে।

প্রাথমিক ভাবে এই ভয় পাওয়ার কথা জানিয়েছেন আব্বাসের এক মহিলা গ্রাহক। আব্বাস মাংস কাটা বড় ছুরি দিয়ে ঠিক যে ভাবে কিমা করে, সেই স্টাইলে তার চুল কেটেছিলেন। ওই মহিলা জানিয়েছেন যে এখন তিনি আব্বাসের কার্যকলাপে অভ্যস্ত এবং ধরনটা তার পছন্দ হয়েছে।

তেমনি যে গ্রাহকের চুলের লেয়ার আগুন লাগিয়ে এবং ধারালো কাচের টুকরোর সাহায্যে সাজানো হয়েছে, তার মুখেও দেখা গিয়েছে খুশির আলো। আর এই প্রসঙ্গে কেবল একটাই কথা বলেছেন আব্বাস- প্রতিভা, অভ্যাস আর ঈশ্বরের অনুগ্রহকে সম্বল করেই চুল কাটার নিত্য নতুন উপায় বের করেন তিনি। এতে কাজের একঘেয়েমি যেমন কাটে, তেমনই নানা নতুন কাট-ও আবিষ্কার করা যায়।  তবে এখন পর্যন্ত কারো কোনো ক্ষতি হয়েছে বলে শোনা যায়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ