একইঘরে সাত ঘণ্টা ধরে আটক কুকুর ও চিতাবাঘ

ঢাকা, শনিবার   ১০ এপ্রিল ২০২১,   চৈত্র ২৮ ১৪২৭,   ২৬ শা'বান ১৪৪২

একইঘরে সাত ঘণ্টা ধরে আটক কুকুর ও চিতাবাঘ

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২০ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

গ্রামের একটি ঘরে প্রায় সাত ঘণ্টা একসঙ্গে আটকে ছিল একটি কুকুর আর চিতাবাঘ। এমনই এক ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে তা ভাইরাল হয়ে পড়ে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এই সময়’র এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ভারতের কর্ণাটকে ঘটেছে এই ঘটনা। কুকুরটিকে চিতাবাঘ তাড়া করায় প্রাণ বাঁচাতে সেটি একটি বাড়ির বাথরুমে ঢুকে পড়ে। আর কুকুরটির পিছু পিছু ওই বাথরুমে ঢুকে চিতাবাঘটিও। সকালে বাড়ির এক মহিলা বাথরুম খুলে এই দৃশ্য দেখে হতভম্ব। মুহূর্তেই বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দেন তিনি। খবর দেয়া হয় পুলিশ ও বনদপ্তরে। ততক্ষণে আশপাশের গ্রাম থেকে লোকজন এসে ভিড় জমিয়েছে।

খবর পেয়ে এসে বাথরুমের জানলার ফাঁক দিয়ে ছবি ও ভিডিও তোলেন বনদপ্তরের কর্মীরা। সেখানে দেখা যায়, বাথরুমের দরজার কাছে আশ্রয় নিয়েছে কুকুরটি আর উল্টো দিকে একটু দূরত্বে বসে আছে চিতাবাঘটি। এই ছবি আর ভিডিও দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

শেষ পর্যন্ত চেতনানাশক ছুড়ে উভয়কেই বেহুঁশ করার চেষ্টা করেন বনদপ্তরের কর্মীরা। পরিকল্পনা ছিল চিতাবাঘটিকে জালে ধরে বনে ছেড়ে আসার। কিন্তু সব চেষ্টা ভেস্তে দিয়ে চিতাবাঘ বাথরুমের ছাদ ভেঙে জাল ছিঁড়ে পালিয়ে যায়।

এদিকে, এ ঘটনার ফলে অনেকেই বন্যপ্রাণীদের বাসযোগ্য স্থান কমে যাওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আর একঘরে সাত ঘণ্টা থাকলেও চিতাবাঘ যে কুকুরটিকে আক্রমণ করেনি, তা দেখে অবাক নেটিজেনরা।

বনদপ্তরের এক আধিকারিকের মতে, চিতাবাঘ গোপনে আক্রমণ করতে পছন্দ করলেও, এক্ষেত্রে হয়তো কুকুরটির প্রাণ বাঁচানোর চেষ্টাটা বুঝতে পেরেছে। আর কারোই পালানোর কোনো পথ ছিল না, সেটাও একটা কারণ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ