পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে বুর্জ খলিফার সমান এক গ্রহাণু!

ঢাকা, শুক্রবার   ২২ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৮ ১৪২৭,   ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে বুর্জ খলিফার সমান এক গ্রহাণু!

বিজ্ঞান ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:০৩ ২৮ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৮:১৪ ২৮ নভেম্বর ২০২০

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

গ্রহাণু এক ধরনের পাথর দিয়ে গঠিত বস্তু। যা তারাকে কেন্দ্র করে আবর্তন করে। সৌরজগতে গ্রহাণুগুলো ক্ষুদ্র গ্রহ নামক শ্রেণীর সবচেয়ে পরিচিত। এরা ছোট আকারের গ্রহ যেমন বুধের চেয়েও ছোট। 

বেশিরভাগ গ্রহাণুই মঙ্গল এবং বৃহস্পতি গ্রহের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত গ্রহাণু বেল্টে থেকে নির্দিষ্ট উপবৃত্তাকার কক্ষপথে সূর্যকে আবর্তন করে। এসব গ্রহাণু এক সময় প্রবল গতিতে পৃথিবীর অস্তিত্ব মুছে দিবে বলে জানিয়েছে বিজ্ঞানীরা।

মহাকাশ বেয়ে চলতি মাসে পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসবে গ্রহাণু। সোমবার মহাজাগতিক রোমঞ্চকর ঘটনার সাক্ষী থাকবে পৃথিবী। দুবাইয়ের বুর্জ খলিফার আকারের এক গ্রহাণু পৃথিবীর কক্ষপথে ঢুকে পড়বে। 

আরো পড়ুন: দিন-রাত পাপ কর্মে ডুবে আছে কুখ্যাত এক দ্বীপ

নাসার তরফে জানানো হয়েছে,গ্রহাণুটি প্রতি ঘণ্টায় ৯০১২৪ কি.মি. গতিতে বিরাটাকার পৃথিবীর কান ঘেঁষে বেরিয়ে যাবে। এই গ্রহাণুটির আকার, ১২০০০ থেকে ২৫৭০০ ফুটের মধ্যে এবং এর ব্যাস প্রায় ২৬৯০ ফুট।

গ্রহাণুটির বৈজ্ঞানিক নাম  ‘১৫৩২০১ ২০০০ ডব্লু ও ১০৭’। পৃথিবীর কক্ষপথে কোনো বিরাটাকারের গ্রহাণু ঢুকে পড়লে তাতে বিপদের আশঙ্কা থাকে তবে এক্ষেত্রে নাসা স্পষ্টভাবে জানিয়েছে যে, বিপদের আশঙ্কা নেই। 

নাসা আরও জানা, পৃথিবী থেকে ৪,৩০২,৭৭৫ কি.মি. দূর দিয়ে চলে যাবে গ্রহাণু। এই গ্রহাণুটি টেলিস্কোপের সাহায্যে দেখা যেতে পারে। নাসার বিজ্ঞানীরা এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, প্রায় ৪.৬ বিলিয়ন বছর আগে সৌরজগৎ তৈরি হওয়ার সময় এই ধরণের গ্রহাণুর সৃষ্টি হয়েছিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস