যে আমল করলে জাহান্নামের আগুন স্পর্শ করতে পারবে না

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৫ আগস্ট ২০২১,   শ্রাবণ ২১ ১৪২৮,   ২৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

যে আমল করলে জাহান্নামের আগুন স্পর্শ করতে পারবে না

ধর্ম ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:১৮ ১৭ জুন ২০২১   আপডেট: ১৪:২০ ১৭ জুন ২০২১

এই দোয়া আমলকারী কখনো জাহান্নামে যাবে না। ছবি: সংগৃহীত

এই দোয়া আমলকারী কখনো জাহান্নামে যাবে না। ছবি: সংগৃহীত

রাসূলুল্লাহ (সা.) তার উম্মতদের সঙ্গে নিয়ে জান্নাতে প্রবেশ করবেন। এজন্য তিনি আমাদের জন্য রেখে গেছেন জান্নাত লাভ করার অসংখ্য উপায়। মহান রাব্বুল আলামিনের কালাম পবিত্র কোরআন আমাদের শিক্ষার জন্য সর্বশ্রেষ্ঠ পুস্তক। দুই সাহাবি হজরত আবু সাঈদ খুদরি ও আবু হুরায়রা (রা.) এমন একটি আমলের হাদিস বর্ণনা করেছেন। যার আমলকারী কখনো জাহান্নামে যাবে না। জাহান্নামে আগুন তাকে স্পর্শ করবে না। এই আমলটি কী এবং কখন করবেন- 

আমলটি হলো-
যে আমলে জাহান্নামের আগুন কখনো কাউকে স্পর্শ করবে না, তাহলো-
> لاَ إِلٰهَ إِلاَّ اللهُ وَاللهُ أكْبَرُ
> لاَ إِلٰهَ إِلاَّ اللهُ وَحدَهُ لاَ شَرِيكَ لَهُ
> لاَ إِلٰهَ إِلاَّ اللهُ لَهُ المُلْكُ وَلَهُ الحَمْدُ
> لاَ إله إِلاَّ اللهُ وَلاَ حَوْلَ وَلاَ قُوَّةَ إِلاَّ باللهِ

এ আমল প্রসঙ্গে হাদিসের পুরো বর্ণনাটি এমন-
হজরত আবু সাঈদ খুদরি ও আবু হুরায়রা (রা.) বর্ণনা করেন তারা উভয়ে রাসূলুল্লাহ (সা.) এর প্রতি এ হাদিস বর্ণনায় সাক্ষ্য দিচ্ছেন যে, তিনি বলেছেন-
> যে ব্যক্তি বলে- لاَ إِلٰهَ إِلاَّ اللهُ وَاللهُ أكْبَرُ : ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার’ : অর্থাৎ আল্লাহ ছাড়া কোনো সত্য উপাস্য নেই এবং আল্লাহ সবচেয়ে বড়।
তখন তার প্রভু তা সত্যায়ন করে বলেন- لاَ إِلٰهَ إِلاَّ أنَا وَأَنَا أكْبَرُ, ‘(আমি ছাড়া কোনো (সত্য) উপাস্য নেই এবং আমি সবচেয়ে বড়)।’

> আর যখন সে বলে- لاَ إِلٰهَ إِلاَّ اللهُ وَحدَهُ لاَ شَرِيكَ لَهُ : ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শাররিকা লাহু’ : অর্থাৎ আল্লাহ ছাড়া কোনো সত্য উপাস্য নেই, তিনি একক, তার কোনো অংশীদার নেই।
তখন আল্লাহ বলেন- لاَ إِلٰهَ إلاَّ أنَا وَحْدِي لاَ شَريكَ لِي, (আমি ছাড়া কোনো সত্য উপাস্য নেই, আমি একক, আমার কোনো অংশীদার নেই)।’

> আর যখন সে বলে- لاَ إِلٰهَ إِلاَّ اللهُ لَهُ المُلْكُ وَلَهُ الحَمْدُ : ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হাম্‌দ’ : অর্থাৎ আল্লাহ ছাড়া কোনো সত্য উপাস্য নেই, সার্বভৌম ক্ষমতা তারই এবং তারই যাবতীয় প্রশংসা। তখন আল্লাহ বলেন- لاَ إِلٰهَ إِلاَّ أنَا لِيَ المُلْكُ وَلِيَ الحَمْدُ, ‘(আমি ছাড়া কোনো সত্য উপাস্য নেই, সার্বভৌম ক্ষমতা আমারই এবং আমার জন্যই যাবতীয় প্রশংসা)।’

> আর যখন সে বলে- لاَ إله إِلاَّ اللهُ وَلاَ حَوْلَ وَلاَ قُوَّةَ إِلاَّ باللهِ : ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, ওয়া লা হাওলা ওয়া লা ক্যুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহি’ : অর্থাৎ আল্লাহ ছাড়া কোনো (সত্য) উপাস্য নেই এবং আল্লাহর প্রেরণা দান ছাড়া পাপ থেকে ফিরে থাকার এবং সৎকাজ করার বা নড়া-চড়ার কোনো শক্তি নেই। তখন আল্লাহ বলেন- لاَ إِلٰهَ إِلاَّ أنَا وَلاَ حَوْلَ وَلاَ قُوَّةَ إِلاَّ بِي, ‘আমি ছাড়া কোনো (সত্য) উপাস্য নেই এবং আমার প্রেরণা দান ছাড়া পাপ থেকে ফিরে থাকার এবং সৎকাজ করার বা নড়া-চড়ার শক্তি কারো নেই।’

(এ আমল সম্পর্কে) রাসূলুল্লাহ (সা.) বলতেন- ‘যে ব্যক্তি তার অসুস্থতার সময় এটি পড়বে এবং মারা যাবে; জাহান্নামের আগুন তাকে খাবে না। অর্থাৎ সে জাহান্নামে যাবে না।’ (তিরমিজি, ইবনে মাজাহ, রিয়াদুস সালেহিন)

সুবহানাল্লাহ!
মহান আল্লাহ তায়ালা কতই না দয়াবান। শুধু তাকে প্রভু হিসেবে সাক্ষী দেওয়ায় এবং তার প্রশংসা করায় অসুস্থ ব্যক্তিকে তিনি সহজেই জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি দান করবেন।

মনে রাখতে হবে
যারা সুস্থ অবস্থায় নিয়মিত এ আমল করবেন; ওই ব্যক্তির দ্বারাই সম্ভব মৃত্যুর আগেও এ আমল নিয়মিত করা। সুতরাং অসুস্থ হওয়ার আগে থেকেই হাদিসে ঘোষিত আমলটি নিয়মিত করা। ফলে মৃত্যুর আগ মুহূর্তে অসুস্থ অবস্থায় আল্লাহর অনুগ্রহে কেউ এ আমল ভুলবে না। মহান আল্লাহ তায়ালাও তার প্রশংসাকারীকে এ আমলের বিনিময়ে জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেবেন।

আল্লাহ তাআলা উম্মতে মুসলিমাহকে হাদিসের ওপর আমল করে তাওহিদের স্বীকৃতি দেওয়ার পাশাপাশি তার প্রশংসা ও তাসবিহ বেশি বেশি করার তাওফিক দান করুন। হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করে জাহান্নাম থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে