একই পরিবারের ৫ জনকে কুপিয়ে হত্যার পর বাড়িতে আগুন

ঢাকা, সোমবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২,   ১২ আশ্বিন ১৪২৯,   ২৮ সফর ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

একই পরিবারের ৫ জনকে কুপিয়ে হত্যার পর বাড়িতে আগুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২১ ২৩ এপ্রিল ২০২২  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ভারতে ২ বছরের এক শিশু-সহ একই পরিবারের পাঁচ জনকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) দেশটির উত্তরপ্রদেশের প্রয়াগরাজের থরবই থানার খেবরাজপুর এলাকায় এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, সকালে মৃত ৫ জনকে তাদের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, দুর্বৃত্তরা এক বয়স্ক দম্পতি, তাদের মেয়ে, পুত্রবধূ ও নাতনিকে হত্যা করেছে। নিহতরা হলেন, রামকুমার যাদব (৫৫), তার স্ত্রী কুসুম দেবী (৫২), মেয়ে মনীষা (২৫), পুত্রবধূ সবিতা (২৭) এবং নাতনী মীনাক্ষী (২)। ঘটনাস্থল থেকে আরেক নাতনী সাক্ষীকে (৫) জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, শনিবার সকালে রামকুমারের বাড়ি থেকে প্রচণ্ড ধোঁয়া বেরোতে দেখেন স্থানীয়রা। ঘরে আগুন লেগেছে এই আশঙ্কা করে বেশ কয়েক জন মিলে রামকুমারের বাড়িতে ঢুকতেই আঁতকে ওঠেন। এসময় তারা বাড়ির চারদিকে পাঁচ জনের রক্তাক্ত মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। এসময় একটি ঘরে আগুন জ্বলছিল।

আরো পড়ুন>> ক্ষমতাচ্যুতির ঘটনায় সেনাপ্রধানকে দুষলেন ইমরান খান

পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। এছাড়া হত্যাকারীদের খুঁজে বের করতে একটি বিশেষ দলও গঠন করেছে পুলিশ। অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতারের জন্য দাবিও জোরালো হচ্ছে এলাকায়।

পুলিশ জানিয়েছে, ধারালো অস্ত্র দিয়ে নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয়েছে পাঁচ জনকে। হত্যাকাণ্ডের কারণ এবং কারাই বা এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তা বের করতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পূর্বপরিচিত কেউ এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত কি না তা-ও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এদিকে এই ঘটনা ঘিরে এলাকায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে বহু সংখ্যক পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এ বিষয়ে স্থানীয় পুলিশের এসএসপি অজয় কুমার জানিয়েছেন, বেডরুমে আগুন লেগেছিল। মৃতদেহগুলো উদ্ধার করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করতে সাত সদসস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আরো পড়ুন>> নির্বাচনে জিতলে হিজাব নিষিদ্ধের ঘোষণা ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর

তিনি আরও জানিয়েছেন, পরিবারের সদস্যদের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে। তবে একই পরিবারের ৫ সদস্যকে কেন হত্যা করা হলো এবং এই হত্যাকাণ্ডের পেছনে কী কারণ রয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়।

উল্লেখ্য, এক সপ্তাহ আগে এই প্রয়াগরাজ থেকেই একই পরিবারের পাঁচ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল। গত ১৬ এপ্রিল নবাবগঞ্জের খাগলপুর গ্রামে এক নারী এবং তার তিন মেয়েকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার অভিযোগ ওঠে। ঝুলন্ত অবস্থায় ওই নারীর স্বামীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সেই ঘটনায় চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী

English HighlightsREAD MORE »