দীর্ঘ ২৪ বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে ওয়ানডে খেলতে নামছে অস্ট্রেলিয়া

ঢাকা, সোমবার   ০৩ অক্টোবর ২০২২,   ১৯ আশ্বিন ১৪২৯,   ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

দীর্ঘ ২৪ বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে ওয়ানডে খেলতে নামছে অস্ট্রেলিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৫৫ ২৮ মার্চ ২০২২  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

টেস্ট সিরিজ শেষে এবার দীর্ঘ ২৪ বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে ওয়ানডে খেলতে নামছে অস্ট্রেলিয়া। টেস্ট সিরিজ জয়ে উজ্জীবিত অজিরা ওয়ানডেতেও জ্বলে উঠতে চায় । অন্য দিকে টেস্ট সিরিজ হারের ক্ষত ওয়ানডের সাফল্য দিয়ে মুছে দিতে মুখিয়ে আছে পাকিস্তান।

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে আগামীকাল লাহোরে বিকেল ৪টায় মুখোমুখি হবে পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া। 

১৯৯৮ সালে সর্বশেষ পাকিস্তান সফর করেছিলো অস্ট্রেলিয়া। ঐ সফরে তিন ম্যাচের টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ খেলেছিলো অজিরা। টেস্ট ১-০ ব্যবধানে ও ওয়ানডে সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতেছিলো অস্ট্রেলিয়া। এরপর নিরাপত্তার কারনে পাকিস্তান সফর করেনি তারা। 

২৪ বছর পাকিস্তান সফরে এসে এরই মধ্যে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ১-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। প্রথম দুই টেস্ট ড্র’র পর শেষ টেস্ট ১১৫ রানের ব্যবধানে জিতে প্যাট কামিন্সের দল। 

এবার ওয়ানডে পরীক্ষা অস্ট্রেলিয়ার। তবে ওয়ানডেতে দলের সেরা ক্রিকেটারদের পাচ্ছে না অজিরা। বিশ্রাম দেয়া হয়েছে প্যাট কামিন্স, জশ হ্যাজেলউড, মিচেল স্টার্ক ও ডেভিড ওয়ার্নারকে। গেল সপ্তাহে বিয়ের কারনে পাকিস্তান সিরিজ থেকে আগেই নিজেকে সরিয়ে নেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। আর টেস্ট সিরিজে কনুইয়ের পুরনো ইনজুরিতে পড়ে সীমিত ওভারের সিরিজ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন স্টিভেন স্মিথ। 

তাই তারুণ্য নির্ভর এক দল নিয়ে পাকিস্তানের মুখোমুখি হতে হচ্ছে অস্ট্রেলিয়াকে। দু’টি করে ওয়ানডে খেলার অভিজ্ঞতা আছে শন অ্যাবট এবং বেন ম্যাকডারমটের। সাম্প্রতিক সময়ে টেস্ট সিরিজে দুর্দান্ত পারফরমেন্সের কারনে আবারও ওয়ানডে দলে সুযোগ হয়েছে ক্যামেরন গ্রিনের। ২০২০ সালে প্রথম ও শেষ ওয়ানডে খেলেছিলেন তিনি। অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন বেন ডারউইশ, নাথান এলিস, জশ ইংলিস এবং মিচেল সুইপসন। ২০১৮ সাল থেকে ওয়ানডে ক্রিকেট খেলছেন না ট্রাভিস হেড।

তারুণ্য নির্ভর দল নিয়ে খেলাটা চ্যালেঞ্জিং বলে মনে করছেন অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার এডাম জাম্পা। তিনি বলেন, ‘একটি দল তৈরি করার এটিই সেরা সুযোগ। তবে এটি কঠিন চ্যালেঞ্জ।’

২০২৩ সালের বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এখন থেকেই দল সাজানোর পরিকল্পনা অস্ট্রেলিয়া। জাম্পা বলেন, ‘পরের ওয়ানডে বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে আমাদের এগোতে হবে। দল নিয়ে যাচাই-বাচাই করার ভালো সুযোগ এই পাকিস্তান সিরিজ।’

২০২১ সালের জুলাইয়ে সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছিলো টি-২০র বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। একই অবস্থা পাকিস্তানেরও। তাই দীর্ঘদিন পর ওয়ানডে খেলতে নামছে পাকরা। অস্ট্রেলিয়ার কাছে টেস্ট সিরিজ হারের ক্ষত ওয়ানডে দিয়ে মুছে ফেলতে চায় তারা। 

পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক-ব্যাটার মোহাম্মদ রিজওয়ান বলেন, ‘টেস্ট সিরিজে আমরা ভালো খেলেছি। শেষ টেস্টের শেষ দিন, ব্যাটাররা নিজেদের দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়। তবে টেস্ট সিরিজ এখন অতীত। ওয়ানডে সিরিজ জিতে টেস্ট হারের ক্ষত মুছে ফেলা সম্ভব। সেই লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নামবো আমরা। সেই সাথে বিশ্বকাপ সুপার লিগের সমীকরনও এই সিরিজের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।’

বিশ্বকাপ সুপার লিগে তিনটি সিরিজ খেলেছে পাকিস্তান। দু’টিতে জিতেছে তারা। সর্বশেষ তিন ম্যাচের সিরিজে ইংল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয় পাকিস্তান। দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে পাকরা। তাই ৯ ম্যাচে ৪ জয় ও ৫ হারে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দশম স্থানে পাকিস্তান।    

বিশ্বকাপ সুপার লিগে তিনটি সিরিজ খেলে, সবগুলোই জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ড-ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে অজিরা।  ৯ ম্যাচে ৬ জয় ও ৩ হারে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সপ্তম স্থানে অস্ট্রেলিয়া। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল

English HighlightsREAD MORE »