রিভিউয়ে হেরে ভারতের কান্নাকাটি, সমালোচনার ঝড়
15-august

ঢাকা, বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২,   ২ ভাদ্র ১৪২৯,   ১৮ মুহররম ১৪৪৪

Beximco LPG Gas
15-august

রিভিউয়ে হেরে ভারতের কান্নাকাটি, সমালোচনার ঝড়

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:১১ ১৪ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৩:৩৫ ১৪ জানুয়ারি ২০২২

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ টেস্ট জিততে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২১২ রানের লক্ষ্য দিয়েছে ভারত। এমতাবস্থায় তৃতীয় দিনে একটি রিভিউ নিয়ে রীতিমতো তুলকালাম কাণ্ড ঘটিয়েছে ভারতের ক্রিকেটাররা। যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উঠেছে সমালোচনার ঝড়।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই এইডেন মার্করামকে হারিয়ে হোঁচট খেয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ডিন এলগার আর কিগান পিটারসেনের জুটিতে তা অবশ্য ভালোভাবেই সামাল দিচ্ছিল দলটি। ম্যাচে যখন প্রোটিয়ারা প্রাধান্য বিস্তারের অপেক্ষায়, তখনই বিতর্কের সূত্রপাত ডিআরএসে।

ঘটনার সূত্রপাত প্রোটিয়াদের দ্বিতীয় ইনিংসের ২১তম ওভারে। ২১২ তাড়া করতে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকা তখন ১ উইকেট হারিয়ে তুলে ফেলেছে ৬০ রান। এমন সময় রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বল গিয়ে আঘাত হানে এলগারের প্যাডে।

ভারতের করা এলবিডব্লিউর আবেদনে ইতিবাচক সাড়া দেন আম্পায়ার মারাইস ইরাসমাস। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা রিভিউ নিলে বল ট্র্যাকিংয়ের সময় দেখা যায় ডেলিভারিটা স্ট্যাম্পের ওপর দিয়ে চলে যেত।

এই বল ট্র্যাকিং টেকনোলজি মূলত পরিচালনা করে হক আই নামের একটি স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠান, যারা সম্প্রচারকারীদের ডেটা দিয়ে থাকে। এক্ষেত্রে সুপারস্পোর্টও হেঁটেছে একই পথে।

তবে সেই রিভিউতে এলগার বেঁচে যাওয়ার পর নিজেদের হতাশা চেপে রাখতে পারেননি ভারতের ক্রিকেটাররা। বলটা লেগেছিল এলগারের হাঁটুর একটু নিচে, যা খোলা চোখে দেখে ‘প্লাম্ব’ মনে হচ্ছিল। সেটাই বেরিয়ে গেছে স্টাম্পের ওপর দিয়ে। তাতেই কোহলির মনে হয়েছে, তার দলকে ঠকানো হয়েছে।

ওভারের বিরতিতে স্ট্যাম্প মাইকের কাছে গিয়ে কোহলি বলেন, ‘নিজেদের দল যখন বল চকচকে বানায়, তখন তাদের ওপর মনোযোগ দাও, প্রতিপক্ষের ওপর নয়। সবসময় লোকজনকে ধরার চেষ্টা চলছেই!’

কোহলি একা নন অবশ্য, যোগ দেন রাহুলও। তিনি বলেন, ‘১১ জন মানুষের বিরুদ্ধে পুরো দেশ লেগে গেছে মনে হচ্ছে!’ অশ্বিনের তো মনে হয়েছে, ভারতকে ম্যাচটা হারানোর ফন্দিই এটা। এই অফ স্পিনার বলেন, ‘জেতার জন্য আরো ভালো একটা উপায় খুঁজে বের করো সুপারস্পোর্ট!’

তবে শুধু ভারতীয় খেলোয়াড়রাই নন, এই রিভিউ হতবাক করে দিয়েছে আম্পায়ার ইরাসমাসকেও। ভেন্যুতে যখন এই রিপ্লে দেখা যাচ্ছিল, তখন দারুণ অবিশ্বাস নিয়ে এদিক ওদিক মাথা ঘোরাচ্ছিলেন আম্পায়ার। এমনকি তাকে বলতেও শোনা গেছে, ‘এটা অবিশ্বাস্য!’

দিনের শেষ বলে জাসপ্রিত বুমরাহর লেগ স্টাম্পের বাইরে করা বলটা খোঁচা দিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন এলগার। তবে আম্পায়ার আদ্রিয়ান হোলস্টক সেটা আউট দেননি, ফলে রিভিউ নেয় ভারত। তখনই কোহলি স্ট্যাম্প মাইকের কাছে এসে আবারো বলেন, ‘এবার কীভাবে এটা দেখাবে কে জানে!’

যদিও সে যাত্রায় সাফল্যই পেয়েছে ভারত। আলট্রা এজে দেখা মেলে স্পাইকের, তাতেই বিদায়ঘণ্টা বাজে এলগারের। সঙ্গে সঙ্গে দিনের শেষ ঘোষণা করেন দুই আম্পায়ার। দক্ষিণ আফ্রিকা ২ উইকেট হারিয়ে ১০১ রান তুলে। ম্যাচ জিততে তাদের চাই ১১১ রান। 

এদিকে ভারতের ক্রিকেটারদের এমন প্রতিক্রিয়া সহজভাবে নেননি অনেক দর্শক। তারা এসব কথাবার্তা ও আচরণকে রীতিমতো জঘন্য বলে উল্লেখ করেছেন। এমনকি কোহলির জায়গায় অন্য কেউ এসব করলে তাকে শাস্তি দেওয়া হতো বলেও মনে করেছেন অনেকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল

English HighlightsREAD MORE »