জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে আফগান সাহায্য সহজ করার প্রস্তাব গ্রহণ

ঢাকা, সোমবার   ২৩ মে ২০২২,   ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ২১ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে আফগান সাহায্য সহজ করার প্রস্তাব গ্রহণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:১৮ ২৩ ডিসেম্বর ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ চরম ভোগান্তির মুখে পড়া আফগান নাগরিকদের মানবিক ত্রাণ সহায়তার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র প্রস্তাবিত একটি প্রস্তাব বুধবার সর্বসম্মতভাবে গ্রহণ করেছে। এদিকে দেশটিতে তালেবানের হাত থেকে বিভিন্ন তহবিল রক্ষার চেষ্টা করা হচ্ছে। খবর এএফপি’র।

খবরে বলা হয়, একটি ভালো প্রস্তাব হিসেবে কট্টরপন্থীরা এ প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে। 

আফগানিস্তানের আর্থিক অবস্থা মুখ থুবড়ে পড়ার প্রেক্ষাপটে চরম মানবিক সংকট এড়ানো প্রশ্নে বিতর্কের কয়েকমাস পর জাতিসংঘ এই প্রথম এমন প্রস্তাব গ্রহণ করলো।

গত আগস্টে তালেবানরা ক্ষমতাগ্রহণের পর ত্রাণের কয়েক বিলিয়ন ডলার এবং বিভিন্ন সম্পদ পশ্চিমা দেশগুলো জব্দ করে রেখেছে। সাহায্য নির্ভর আফগান অর্থনীতির ক্ষেত্রে এটিকে জাতিসংঘ একটি ‘নজিরবিহীন আর্থিক অভিঘাত’ হিসেবে বর্ণনা করেছে।

বিগত কয়েকমাস ধরে পর্যবেক্ষকরা সতর্ক করে দিয়ে আসছে যে, এই প্রচণ্ড শীতের মধ্যে একইসঙ্গে খাদ্য, জ্বালানি ও আর্থিক সংকট চলাকালে দেশটির লাখ লাখ মানুষ অনাহারে থাকছে। আবার অনেকে বাধ্য হয়ে অভিবাসনের পথ বেছে নিচ্ছে।

প্রস্তাবটি— আফগানিস্তানে অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যে কীভাবে মানবিক বিপর্যয় এড়ানো যায় তা নিয়ে কয়েক মাস ধরে তর্ক-বিতর্কের পর জাতিসংঘের প্রথম পদক্ষেপ। ইসলামপন্থীরা এটিকে একটি ‘ভালো পদক্ষেপ’ বলে স্বাগত জানিয়েছে।

গেল আগস্টে তালেবান ক্ষমতায় ফিরে আসার পর থেকে, পশ্চিমারা বিলিয়ন ডলারের সাহায্য এবং সম্পদ হিমায়িত করেছে যা জাতিসংঘ সাহায্য-নির্ভর আফগান অর্থনীতির জন্য ‘অভূতপূর্ব আর্থিক ধাক্কা’ হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছিল।

কয়েক মাস ধরে পর্যবেক্ষকরা সতর্ক করে আসছিলেন, তিক্ত শীত জুড়ে মিলিত খাদ্য, জ্বালানি এবং নগদ সংকটের সময় লাখ লাখ মানুষ অনাহার বা অভিবাসনের মধ্যে একটি পছন্দের মুখোমুখি হয়।

নিরাপত্তা পরিষদের রেজুলেশন তালেবানকে বিচ্ছিন্ন করার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন না করে এক বছরের জন্য দেশে সাহায্য প্রবাহের অনুমতি দেয়, যার শাসন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় দ্বারা স্বীকৃত নয়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বুধবার তালেবানদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করার জন্য সহায়তার অনুমতি দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত পদক্ষেপের ঘোষণা করেছে। 

তালেবান ক্ষমতায় ফিরে আসার পর, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আফগান কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে প্রায় ৯.৫ বিলিয়ন ডলার স্থগিত করে দেয় এবং বিশ্বব্যাংকও কাবুলকে সহায়তা স্থগিত করে।

এতে মুদ্রার পতন ঘটে। ফলে আফগানস্তানের পরিবারগুলো তাদের প্রয়োজন মেটানোর জন্য আসবাবপত্র এবং গয়না বিক্রি করে।

জাতিসংঘ আগেই সতর্ক করেছিল যে, আফগানস্তানে খরা এবং কোভিড-১৯ মহামারি দ্বারা বিপর্যস্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেশটি আর্থিক ধাক্কা খাবে। চলতি বছরে দেশটি অর্থনীতিতে ২০ শতাংশ সংকুচিত হতে পারে।

এর আগে, আন্তর্জাতিক সাহায্য আফগানিস্তানের জিডিপির ৪০ শতাংশ প্রতিনিধিত্ব করেছিল এবং এর বাজেটের ৮০ শতাংশ অর্থায়ন করেছিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএস

English HighlightsREAD MORE »