ইন্দোনেশিয়ার সেমেরুতে ফের অগ্ন্যুৎপাত

ঢাকা, সোমবার   ২৭ জুন ২০২২,   ১৩ আষাঢ় ১৪২৯,   ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

ইন্দোনেশিয়ার সেমেরুতে ফের অগ্ন্যুৎপাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:১৯ ১৬ ডিসেম্বর ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ইন্দোনেশিয়ার জাভা দ্বীপের সেমেরু আগ্নেয়গিরিতে আবারও ভয়াবহ অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার আকাশে ছাইয়ের বিশাল স্তপের ঢেউ ছড়িয়ে পড়ার পর অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে। এর ফলে সেখানকার শত শত উদ্ধারকর্মী আতঙ্কে পালিয়েছেন।

জাভা দ্বীপের এই আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাতে চলতি মাসের শুরুর দিকে কমপক্ষে ৪৮ জনের প্রাণহানি ঘটে। এছাড়া ছাই-ভস্মের নিচে কয়েক ডজন মানুষ এখনও নিখোঁজ রয়েছেন।

উদ্ধারকারী কর্মীরা কাদা এবং আগ্নেয়গিরির ধ্বংসাবশেষে খনন কাজ করার সময় বৃহস্পতিবার অগ্নুৎপাত শুরু হয়েছে। চূড়া থেকে সাড়ে ৪ কিলোমিটার দূরে পৌঁছেছে আগ্নেয়গিরির ধ্বংসাবশেষ। সর্বশেষ অগ্ন্যুৎপাতের কারণে উদ্ধারকর্মীরা তাদের তৎপরতা স্থগিত করতে বাধ্য হয়েছেন।

বৃষ্টির কারণে আগুনের শিখা গ্রামের দিকে ধেয়ে আসছে জানিয়ে উদ্ধারকারী সাইফুল হাসান ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেন, এ অবস্থায় উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রাখা উদ্ধারকারীদের জন্য খুবই বিপজ্জনক। বৃহস্পতিবারের অগ্নুৎপাতে কোনো হতাহত হয়েছে কি-না তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তবে সেমেরু আগ্নেয়গিরির আশপাশের গ্রাম থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। 

তিনি বলেন, আগের অগ্ন্যুৎপাতের পর লাভার স্তুপের এই পতনের মানে সেমেরু আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত ও ছাই উদগীরণ আরও ঘন ঘন হবে।

গত ৪ ডিসেম্বরের ওই বিপর্যয়ে সেখানকার পুরো রাস্তা, বাড়িঘর এবং যানবাহ কাদা ও ছাইয়ে ঢাকা পড়ে যায়। এই ঘটনার পর প্রায় ১০ হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়।

জাভা দ্বীপের সবচেয়ে উঁচুতে অবস্থিত সেমেরু আগ্নেয়গিরি। এর আগে, গত জানুয়ারিতেও এই আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাত হয়েছে। তখন কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। ইন্দোনেশিয়ায় প্রায় ১৩০টি সক্রিয় আগ্নেয়গিরি রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ

English HighlightsREAD MORE »