মুমিনুলের শতক, শান্তর দেড় শতকে বিরতিতে বাংলাদেশ

ঢাকা, রোববার   ১৩ জুন ২০২১,   জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪২৮,   ০২ জ্বিলকদ ১৪৪২

মুমিনুলের শতক, শান্তর দেড় শতকে বিরতিতে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৩৭ ২২ এপ্রিল ২০২১   আপডেট: ১২:৩৯ ২২ এপ্রিল ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ব্যাট করছে বাংলাদেশ। শান্ত-মুমিনুলদের দৃঢ়তায় বড় সংগ্রহের দিকে ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে টাইগাররা। সেঞ্চুরি করা শান্ত পার করেছেন দেড়শ রানের মাইলফলক। দলের দ্বিতীয় ব্যাটার হিসেবে সেঞ্চুরি করেছেন মুমিনুল হকও।

লাঞ্চ বিরতি পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেট হারিয়ে ৩৭৮ রান। নাজমুল হোসেন শান্ত ১৫৫ ও মুমিনুল হক ১০৭ রানে ব্যাট করছেন।

দুই উইকেট হারিয়ে ৩০২ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে বাংলাদেশ। যেখান থেকে আগের দিন শেষ করেছিলেন, সেখান থেকেই যেন শুরু করে শান্ত-মুমিনুল জুটি। লংকান বোলারদের কোনো সুযোগই দেননি তারা। এরই মধ্যে দুজনের জুটির রান ২০০ ছাড়িয়েছে। 

প্রথম সেশনের উল্লেখযোগ্য মুহূর্ত ছিল মুমিনুলের সেঞ্চুরি। ধনঞ্জয় ডি সিলভাকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে শতক পূরণ করেন এই বাঁহাতি ব্যাটার। ২২৪ বলে ক্যারিয়ারের একাদশতম শতক করেন তিনি। শতকের পথে ৯টি বাউন্ডারি হাঁকান টাইগারদের টেস্ট অধিনায়ক। দেশের বাইরে এটাই তার প্রথম সেঞ্চুরি।

এর আগে বুধবার ক্যান্ডির পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন টাইগার অধিনায়ক মুমিনুল। এ সিরিজটি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্গত। দলের হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন তামিম ইকবাল ও সাইফ হাসান।

প্রথম ওভারে দুই চারের সাহায্যে তামিম ৮ রান করে ভালো শুরুর ইঙ্গিত দেন। তবে পরের ওভারে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফেরেন সাইফ। তাকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন বিশ্ব ফার্নান্দো।

শুরুতে উইকেট হারালেও দলকে চাপে পড়তে দেননি তামিম। পাল্টা আক্রমণে দ্রুত রান তুলতে থাকেন তিনি। দেশসেরা ব্যাটসম্যান ক্যারিয়ারের ২৯তম ফিফটি পূরণ করেন মাত্র ৫২ বলে। 

অবিচ্ছিন্ন থেকেই প্রথম সেশন শেষ করেন তামিম ও শান্ত। দ্বিতীয় সেশনেও ঠান্ডা মাথায় খেলে দলকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন তারা। ধীরগতিতে এগোতে থাকা শান্ত ১২০ বলে ফিফটি পূরণ করেন। 

এরপরই ব্যক্তিগত ৯০ রানে বিশ্ব ফার্নান্দোর দ্বিতীয় শিকার হন তামিম। দারুণ খেলতে থাকা এই টাইগারর ওপেনার স্লিপে লাহিরু থিরিমান্নের হাতে ক্যাচ তুলে দেন। ওয়ানডে স্টাইলে খেলা তামিমের ১০১ বলের ইনিংসে ছিল ১৫টি চারের মার।

দিনের বাকিটা সময় আর কোনো উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। ধনঞ্জয় ডি সিলভাকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে সেঞ্চুরি পূরণ করেন শান্ত। ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট শতকের পথে ২৩৫টি বল খেলেন তিনি। মারেন ১২টি চার ও একটি ছক্কা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল