৪৫ কিশোরীকে ধর্ষণে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড, সাহায্য করায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

ঢাকা, শনিবার   ০৮ মে ২০২১,   বৈশাখ ২৬ ১৪২৮,   ২৫ রমজান ১৪৪২

৪৫ কিশোরীকে ধর্ষণে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড, সাহায্য করায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:৫১ ২৭ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১১:৩৪ ২৭ জানুয়ারি ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

এক দম্পতির বিরুদ্ধে ৪৫ কিশোরীকে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগ মামলার রায় দিয়েছেন আদালত। পাকিস্তানের রওয়ালপিন্ডির এ ঘটনায় স্বামীকে মৃত্যুদণ্ড এবং সহযোগিতার জন্য স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। মঙ্গলবার পাকিস্তানের নিম্ন আদালত এ রায় ঘোষণা করে।

পাকিস্তানের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ জাহাঙ্গির গোন্দাল এ রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদণ্ড পাওয়া যুবকের নাম কাসিম জাহাঙ্গীর। এ রায়ে তাকে তিন বছর কারাদণ্ড এবং ২৫ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়। তার স্ত্রী কিরান জাহাঙ্গীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং দশ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়।

মামলার রায়ে থেকে জানা যায়, রওয়ালপিন্ডির ওই দম্পতি কিশোরীদের অপহরণ করতেন। পরে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ওই পুরুষ তাদের ওপর চালাত যৌন নির্যাতন। আবার তা ভিডিও করা হত। এসব কাজে তার সহযোগী হিসেবে কাজ করত তারই স্ত্রী।

তারা ৪৫ কিশোরীকে অপহরণ, ধর্ষণ এবং অন্তত ১০ জনের আপত্তিকর ছবি তোলাসহ ভিডিও ধারণ করে বলে মামলায় প্রমাণিত হয়। ২০১৯ সালে দেশটির গরডন কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে একজন বৃত্তি পাওয়া ছাত্রীকে এক নারী অপহরণ করে।

ভোক্তভোগী ওই ছাত্রী মামলার অভিযোগে বলেন, ওই নারী তাকে গন্তব্যে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে গাড়িতে তোলে। পরে তাকে অজানা গন্তব্যে নিয়ে যায়। সেখানে অপহরণকারী ওই নারীর স্বামী তাকে ধর্ষণ করে এবং ঘটনার ভিডিও ধারণ করা হয়। ওই ঘটনার তদন্ত শুরু হলে তাদের পুরো অপকর্মের দৃশ্য বেরিয়ে আসে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস