লাদাখকে কেন্দ্রীয়শাসিত অঞ্চল হিসেবে স্বীকৃতি দেয় না চীন: ঝাও লিজিয়ান

ঢাকা, সোমবার   ২৭ জুন ২০২২,   ১৩ আষাঢ় ১৪২৯,   ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

লাদাখকে কেন্দ্রীয়শাসিত অঞ্চল হিসেবে স্বীকৃতি দেয় না চীন: ঝাও লিজিয়ান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:১৬ ১৪ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ০০:১৬ ১৪ অক্টোবর ২০২০

ঝাও লিজিয়ান

ঝাও লিজিয়ান

ভারত-চীন সীমান্তে চলমান উত্তেজনার মধ্যে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের পক্ষ থেকে সীমান্ত এলাকায় ৪৪টি নতুন সেতু উদ্বোধনের বিষয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে চীন। ওই অঞ্চলে অবকাঠামো তৈরির বিরোধিতা করছে দেশটি। চীন জানিয়েছে, তারা লাদাখকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে স্বীকৃতি দেয় না। এছাড়া এটি ভারত অবৈধভাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে বলেও উল্লেখ করেছে চীন।

মঙ্গলবার ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, সীমান্তে অবকাঠামোগত উন্নয়নকে উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার প্রধান কারণ হিসেবে বর্ণনা করেছেন চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান। উভয়পক্ষেরই এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত নয় যা উত্তেজনা বাড়িয়ে তোলে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সোমবার বর্ডার রোডস অর্গানাইজেশনের তৈরি ৪৪ টি সেতু উদ্বোধন করেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। সেসময়ে তিনি বলেন, পাকিস্তান ও চীন মিলে সীমান্ত সমস্যা তৈরির চেষ্টা করছে। এই দুই দেশের সঙ্গে আমাদের ৭ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্ত আছে।

ঝাও লিজিয়ান বলেন, প্রথমেই আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই যে, চীন লাদাখকে কেন্দ্রীয়শাসিত অঞ্চল হিসেবে স্বীকৃতি দেয় না। অরুণাচল প্রদেশকে ভারত অবৈধভাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। আমরা সামরিক উদ্দেশ্যে সীমান্তে অবকাঠামোগত উন্নয়নের বিরোধী।

তিনি আরো বলেন, সহমতের ভিত্তিতে উভয়পক্ষেরই সীমান্তের আশেপাশে এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত নয় যার ফলে উত্তেজনা বাড়ে। এসব পদক্ষেপের ফলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে উভয়পক্ষের প্রচেষ্টা ব্যাহত হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

লিজিয়ানের দাবি, সীমান্তে অবকাঠামো বাড়ানোর পাশাপাশি ভারতীয় পক্ষ সেনাবাহিনী মোতায়েন করছে যা উভয়পক্ষের মধ্যে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার মূল কারণ। তিনি বলেন, আমরা ভারতীয় পক্ষকে অনুরোধ করছি উভয়পক্ষের পারস্পরিক সম্মতি অনুযায়ী কাজ করতে এবং পরিস্থিতি খারাপ হওয়ার মতো কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ থেকে এড়িয়ে চলতে। ভারতের উচিত সীমান্তে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য কংক্রিট ব্যবস্থা নেয়া।

এদিকে, সীমান্তে চলমান উত্তেজনার মধ্যে সোমবার ভারত ও চীনের কর্মকর্তাদের মধ্যে সামরিক স্তরে বৈঠক হয়েছে। এই নিয়ে সাত বার দু’দেশের মধ্যে সামরিক স্তরে বৈঠক হলো।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা গেছে, ভারতীয় ভূখণ্ড থেকে চীনের সেনাদের সম্পূর্ণ পিছু হটার দাবি জানিয়েছে ভারত। এজন্য একটি পরিকল্পনার খসড়াও দেয়া হয়েছে চীনের সেনাবাহিনীর হাতে। প্রথমে গালওয়ান এলাকার ভূখণ্ড, তারপরে প্যাংগং লেকের উত্তর ভাগ ও সর্বশেষ বর্তমান সংঘর্ষবিন্দু অর্থাৎ লেকের দক্ষিণভাগ থেকে সেনা সরানোর দাবি জানানো হয়েছে।

সূত্র- পার্সটুডে

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএমএফ

English HighlightsREAD MORE »