অভিনেত্রী তিশাকে হত্যার হুমকি

ঢাকা, সোমবার   ২৭ জুন ২০২২,   ১৩ আষাঢ় ১৪২৯,   ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

অভিনেত্রী তিশাকে হত্যার হুমকি

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২৩ ১৩ অক্টোবর ২০২০  

অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা

অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা

ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা। জানা গেছে, কয়েকটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে তাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। প্রশ্ন হচ্ছে কেন দেয়া হয়েছে এই হুমকি?

জানা গেছে, সম্প্রতি ‘বিজয়া’ নামে একটি একক নাটকে অভিনয় করেন তিশা। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউনের ব্যানারে দুর্গাপূজা উপলক্ষে নির্মিত এ নাটকে তিশার সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন ইরফান সাজ্জাদ। শুধু তিশা নন, এই নাটকের নির্মাতা, গল্পকার ও অন্য অভিনয়শিল্পীদেরও হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন নাটকটির গল্পকার ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইমেন্টের কর্ণধার সোয়েব চৌধুরী।

সোয়েব চৌধুরী বলেন—এখন পর্যন্ত নাটকের পোস্টার, টিজার কিছু্ই প্রচার করিনি। আমার তো মনে হচ্ছে কেউ ক্রাউনের কাজে হিংসা করে প্রতিষ্ঠানটি বন্ধের ষড়যন্ত্র করছেন। এমন যদি কেউ ভেবে থাকেন তাহলে ভুল ভেবেছেন। শুটিংয়ের পর থেকেই বেশ কয়েকজন আমাকে, অভিনয়শিল্পী ও নাটকের টিমকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। এরই মধ্যে আমরা বেশ কয়েকজনের তথ্য সংগ্রহ করেছি এবং মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমাকে বা এই নাটকের কাউকে হুমকি দিয়ে ফৌজদারি অপরাধ থেকে বিরত থাকুন।

এর আগে ধর্মান্তরকরণ ও সাম্প্রদায়িকতা উসকে দেয়ার অভিযোগ এনে অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশার বিরুদ্ধে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। সোমবার (১২ অক্টোবর) অভিযোগকারী লিটন কৃষ্ণ দাসের পক্ষে এ নোটিশ পাঠিয়েছেন আইনজীবী সুমন কুমার রায়।

আবু হায়াত মাহমুদ নির্মিত ‘বিজয়া’ নাটকটি রচনা করেছেন সালেহ উদ্দীন সোয়েব চৌধুরী। এদের সবাইকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। লিগ্যাল নোটিশপ্রাপ্তির ৭ দিনের মধ্যে বিতর্কিত ‘বিজয়া’ নাটকটি প্রত্যাহার করতে নোটিশে উল্লিখিত অভিযুক্তদের প্রতি বিনীত অনুরোধ করা হয়েছে। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে দেশে প্রচলিত যে কোনো দেওয়ানি ও ফৌজদারি আদালতের আশ্রয় নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবী।

এ বিষয়ে পরিচালক আবু হায়াত মাহমুদ বলেন, এমন নোটিশ হাস্যকর। কারণ এখন পর্যন্ত নাটকের কোনো কিছুই আমরা প্রকাশ করিনি, তারা কীভাবে নাটকের গল্প বুঝলেন? আগে তারা নাটকটি দেখুক তারপর মন্তব্য করুক। দর্শকের জন্য নাটক নির্মাণ করি। ধর্মে আঘাত লাগে এরকম কাজ করার প্রশ্নই উঠে না।

আইনজীবী সুমন কুমার রায়ের কাছে জানতে চাওয়া হয় নাটক প্রচারের আগে কীভাবে জানলেন ধর্মান্তরকরণ ও সাম্প্রদায়িকতা উসকে দেয়া হয়েছে? উত্তরে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন—আমরা পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত নাটকের গল্প দেখে মনে হয়েছে ধর্মান্তরকরণ ও সাম্প্রদায়িকতা উসকে দেয়া হচ্ছে। আমরা আইনিভাবে লড়ে যাব।

নাটকটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্টের ডেপুটি সিইও তাজুল ইসলাম জানান, ‘বিজয়া’ নিয়ে অশ্লীল মন্তব্যকারী এবং হত্যা হুমকিদানকারীর বিরুদ্ধে ক্রাউন কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা নিচ্ছে। এরই মধ্যে বেশকিছু অপরাধীর পরিচয় চিহ্নিত করা হয়েছে। আমরা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ

English HighlightsREAD MORE »