বিকাশের টাকা ডাকাতি চক্রের চার সদস্য গ্রেফতার

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ১২ ১৪২৭,   ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বিকাশের টাকা ডাকাতি চক্রের চার সদস্য গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৫৬ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:২৭ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রাজধানীর মোহাম্মদপুর, আদাবর ও বছিলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিকাশের টাকা ডাকাতি চক্রের মূলহোতাসহ চার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা তেজগাঁও বিভাগের একটি টিম। 

গ্রেফতারকৃতরা হলো- মো. শাহীন শেখ, মো. সোহেল হোসেন, মো. মুন্না ও মো. হায়দার। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২টি মোবাইল ও ১টি ট্যাব উদ্ধার করা হয়েছে। সেইসঙ্গে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ১টি চাপাতি, ২টি ছুরি ও ১টি প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর, আদাবর ও বছিলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে তেজগাঁও জোনাল টিম।

বুধবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) এ কে এম হাফিজ আক্তার।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার হাফিজ বলেন, গত ১২ সেপ্টেম্বর রাতে শেরেবাংলা নগর থানার বৌ-বাজার মোড়ে একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেটকারে আসা চারজন ডাকাত বিকাশ এজেন্টকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে আহত করে তার সঙ্গে থাকা আট লাখ টাকা ও মোবাইল ফোনসহ সবকিছু ডাকাতি করে নিয়ে পালিয়ে যায়। আশেপাশের লোকজন আহত বিকাশ এজেন্টকে প্রথমে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল এবং পরবর্তী সময়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা হয়।

তিনি আরো বলেন, থানা পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা তেজগাঁও বিভাগ মামলাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে। তথ্য প্রযুক্তি ও অপরাধীদের অপরাধের ধরণ বিশ্লেষণ করে গোয়েন্দা পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত অভিযুক্তদের শনাক্ত ও গ্রেফতার করে।

আসামিদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে তিনি জানান, বিকাশের টাকা ডাকাত চক্রের মূলহোতা শাহীনের দেয়া তথ্য মতে অন্যান্য সহযোগীরা যে দোকানে বা ব্যক্তিকে ছিনতাই- ডাকাতি করবে তাকে টার্গেট করে। 

পরবর্তী সময়ে ১ থেকে ২ জন প্রথমে রেকি করে, তারপর টার্গেটকৃত ব্যক্তি যখন দোকান বন্ধ করবে বা একা হবে বা বাসায় ফিরবে তখন তাকে গতিরোধ করে ধারালো চাপাতি ও  ছুরি দিয়ে কুপিয়ে টাকা ডাকাতি করে আশেপাশে রাখা প্রাইভেটকার যোগে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এই সংঘবদ্ধ দলটি এর আগে রাজধানীর বছিলা, মোহাম্মদপুরের ঢাকা উদ্যান, আশুলিয়া বেড়িবাধ ও নারায়ণগঞ্জের চিটাগাং রোডে একাধিক ডাকাতি-ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িত বলে স্বীকার করেছে।

এ সময় সাধারণ জনগণের উদ্দেশে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, নিরাপদে বেশি টাকা লেনদেনের ক্ষেত্রে পুলিশের সহযোগিতা গ্রহণ করুন। গ্রেফতারকৃতদের নামে দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/ইএ/এমআরকে