চিকিৎসার অভাবে হাসপাতালের মেঝেতে এক সময়ের কোটিপতি

ঢাকা, শনিবার   ২৮ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৭,   ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

চিকিৎসার অভাবে হাসপাতালের মেঝেতে এক সময়ের কোটিপতি

মাদারীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৫৬ ২ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৮:০০ ২ সেপ্টেম্বর ২০২০

তাজ বিড়ি ফ্যাক্টরির মালিক কোটিপতি ব্যবসায়ী নুরু মাতুব্বর

তাজ বিড়ি ফ্যাক্টরির মালিক কোটিপতি ব্যবসায়ী নুরু মাতুব্বর

এক সময় কোটিপতি ব্যবসায়ী ছিলেন নুরু মাতুব্বর। এখন চিকিৎসার অভাবে হাসপাতালের মেঝেতে মুমূর্ষু অবস্থায় পড়ে আছেন। পাশে নেই কোনো সন্তান।

বিদেশে পড়াশুনা, চার সন্তানকে বিঘার পর বিঘা সম্পত্তি দিয়েছেন। কিন্তু গত চারদিনেও বাবাকে দেখতে আসার প্রয়োজন বোধ করেননি তারা।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালে গত রোববার থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় পড়ে আছেন এক সময়ের তাজ বিড়ি ফ্যাক্টরির মালিক কোটিপতি ব্যবসায়ী নুরু মাতুব্বর। পরিবারের নিগ্রহে গত ১৫ বছর ধরে মানুষের দ্বারে দ্বারে জীবিকার জন্য ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. ইমরানুর রহমান জানান, উন্নত চিকিৎসা ছাড়া স্বাভাবিক জীবনে আর ফিরতে পারবেন না তিনি।  

জানা গেছে, সদর উপজেলার ঝিকরহাটি গ্রামের নুরু মাতুব্বরকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করে দিয়ে গেছেন। খাওয়া-দাওয়া বন্ধ হয়ে গেছে তার। দ্রুত তার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন।

স্থানীয়রা জানান, সদর উপজেলার চরমুগরিয়া এলাকার ‘তাজ বিড়ি ফ্যাক্টরি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় মালিক নুরু মাতুব্বর বাড়ি বিক্রি করে ছেলেকে লন্ডন পাঠিয়ে পড়াশোনা করান। বিঘার পর বিঘা জমি তিন মেয়ে ও এক ছেলেকে লিখে দিয়েছেন। তাদের বিয়েও দিয়েছেন। এতো কিছু করার পরও গত ১৫ বছর ধরে বাড়িছাড়া হতভাগ্য বাবা। মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে খাবার সংগ্রহ করলেও এখন চিকিৎসার অভাবে মৃত্যুশয্যায়। 

বাবাকে ভরণপোষণ ও তার খোঁজ না নেয়ায় সন্তানদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন ইউএনও মো. সাইফুদ্দিন গিয়াস। এমন ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

নুরু মাতুব্বরের সন্তানদের দাবি, পারিবারিক ঝামেলার কারণে তাদের বাবার সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এ ব্যাপারে নুরু মাতুব্বরের সন্তানরা কথা বলতে রাজি হননি। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে