হারিয়ে যাওয়া বাবাকে ছেলের বুকে ফিরিয়ে দিলেন ওসি

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৭,   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

হারিয়ে যাওয়া বাবাকে ছেলের বুকে ফিরিয়ে দিলেন ওসি

জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২৫ ৬ মে ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পথ ভুলে চুয়াডাঙ্গার জীবন নগরে চলে আসেন মেহেরপুর সদরের জুগিন্দা গ্রামের মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধ ওয়াজেদ আলী। একপর্যায়ে উপজেলার সীমান্ত এলাকার মেদিনীপুর গ্রামে এলোমেলোভাবে ঘুরতে থাকেন তিনি। আসেন। অপরিচিত বৃদ্ধকে দেখে গ্রামবাসী করোনা শঙ্কায় পড়েন। পরে বাধ্য হয়ে পুলিশে খবর দেন তারা।

খবর পেয়েই জীবননগর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম মেদিনীপুরে উপস্থিত হয়ে গত সোমবার রাত ১২টার সময় ওই বৃদ্ধকে একটি দোকানের সামনে থেকে উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে নেন।

বৃদ্ধা ওয়াজেদকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে তার মধ্যে করোনাভাইরাসের লক্ষণ না পেলেও অন্যান্য কারণে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। 

বৃদ্ধ ওয়াজেদ আলী তাৎক্ষণিভাবে তার নিজের ঠিকানা বলতে না পারায় ওসি সাইফুল ইসলাম এসপি জাহিদুল ইসলামের নির্দেশে তাকে থানা হেফাজতে রাখেন। একপর্যায়ে কিছুটা স্বাভাবিক হলে বৃদ্ধা ওয়াজেদ নাম ঠিকানা প্রকাশ করেন।

এ অবস্থায় ওসি সাইফুল ইসলাম বৃদ্ধাকে আপন ঠিকানায় পাঠিয়ে দিতে উদ্যোগ গ্রহণ করেন এবং থানা হেফাজতে দুদিন অবস্থানের একপর্যায়ে বুধবার সকাল ১০টায় বৃদ্ধার পরিবারের সদস্যরা থানায় উপস্থিত হলে এক হৃদয় বিদারক পরিবেশের সৃষ্টি হয়। বৃদ্ধের স্বজনেরা আপ্লুত হাসি ভরা মুখে তাকে জড়িয়ে ধরে। বৃদ্ধাও তাদেরকে পেয়ে অবাক দৃষ্টিতে সন্তানের দিকে চেয়ে থাকে। আবার একটু হাসি মাখা মুখে সন্তানের শরীর স্পর্শ করে কী যেন বলার চেষ্টা করেন। 

এমন অবস্থায় ওসি সাইফুল ইসলাম বৃদ্ধের দিকে এগিয়ে যান এবং বৃদ্ধার গায়ে হাত রেখে তাকে সান্ত্বনা দেন। তিনি বৃদ্ধের কাছে দোয়া চেয়ে তাকে ছেলে মজনুর হাতে তুলে দেন।

এব্যাপারে বৃদ্ধ ওয়াজেদ আলীর ছেলে মজনু বলেন, আমার আব্বা একজন মানসিক বিকারগ্রস্ত মানুষ। তিনি একমাস আগে বাড়ির সবার অজান্তে নিরুদ্দেশ হন। আমরা সম্ভাব্য সব স্থানে খোঁজাখুঁজি করি কিন্তু কোথাও সন্ধান পায়নি। একপর্যায়ে জীবননগর থানা পুলিশের মাধ্যমে আমার বাবা খবর পেয়ে থানায় আসি এবং আমাদের  বাবাকে চিনতে পারি। ওসি সাইফুল ইসলাম আমার বাবাকে আমাদের হাতে তুলে দেন। আমার বাবাকে জীবননগর থানা পুলিশের মাধ্যমে খুঁজে পাওয়ায় ওসি সাইফুল ইসলামের কাছে আমরা চিরকৃতজ্ঞ। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ