Alexa সমালোচিত আঁখির ‘ল্যায়লা’

ঢাকা, রোববার   ১৮ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৩ ১৪২৬,   ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

সমালোচিত আঁখির ‘ল্যায়লা’

বিনোদন প্রতিবেদক

ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত : ০২:৩৫ পিএম, ২৩ মার্চ ২০১৯ শনিবার | আপডেট: ০২:৪১ পিএম, ২৩ মার্চ ২০১৯ শনিবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আঁখি আলমগীর। গানের দুনিয়ায় অবাধ বিচরণ তার। দেশ ও দেশের বাইরে নিয়মিত স্টেজ শো নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও শ্রোতাদের নতুন নতুন গান উপহার দিতে ভোলেন না এই শিল্পী। আর নতুন গান মানেই নতুন রূপে ভিডিওতে হাজির আঁখি। তবে অতীতের সব রূপকে পেছনে ফেলে গেলো ১৪ মার্চ দর্শকদের বাড়তি চমক দিতেই ‘ল্যায়লা’ তে নতুন রূপে হাজির হন এই তারকা। প্রাণআপের পৃষ্ঠপোষকতায় গানটি প্রকাশিত হয় ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের ব্যানারে। 

প্রসেনজিত মুখার্জীর কথায় ‘ল্যায়লা’ গানটির সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন অম্লান চক্রবর্তী। ভিডিও নির্মাণে কলকাতার টিভিওয়ালা মিডিয়া। ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন- রাহুল ঘোষ। নাচে গানে ভরপুর ‘ল্যায়লা’তে আঁখি আলমগীর যেন ফিরে গিয়েছেন তার সেই ষোড়শী তে। নিজে নেচেছেন, নাচিয়েছেন কলকাতার একটি ড্যান্স গ্রুপকেও। 

তবে এই গানটি প্রকাশের পর আঁখি আলমগীর যতটা না প্রশংসায় ভাসছেন তার চেয়েও বেশি সমালোচিত হয়েছেন দর্শক মহলে। গানটি প্রকাশের পর থেকে এখন পর্যন্ত ইউটিউবে প্রায় চার লক্ষবার দেখা হয়েছে গানটি। গানের নিচে লাইক পড়েছে ছয় হাজারের বেশি আর ডিস লাইক পড়েছে এক হাজারের বেশি। কিন্তু কমেন্ট বক্সে তাকালে দেখা যায় শ্রোতা-দর্শকরা গানটির প্রশংসারর চেয়ে সমালোচনাই বেশি করেছে। 

কমেন্টে রবিউল ইসলাম হৃদয় নামের এক ব্যক্তি লিখেছেন, প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে,তাছাড়া লিরিক গুলোও ভাল লাগে নাই। রাজ আহমেদ লিখেছেন, গানের তো কোন কিছুই বুঝতে পারলাম না। শুধু মিউজিক টা বাদে। আরেক জন লিখেছে  বৃদ্ধ মহিলার থেকে এইটা কিভাবে আশা করা যায়। 

আমিনুল ইসলাম নামের একজন লিখেছেন  মিউজিক টা কপি, তাছাড়া অটোটিউন অতি মাত্রায় ব্যবহিত হয়েছে। আঁখি খালার কন্ঠ এমনিতেই সুন্দর ছিল। কেউ কেউ লিখেছে, অটো টিউন টা একটু বেশি হয়ে গেলো না??  আবার কেউ আইটেম গানের সঙ্গে তুলনা করেছে, অনেকে আবার একজন ছেলে কন্ঠের দাবি জানিয়েছেন। এছাড়াও অনেকে অনেক সমালোচনা করছে। 

গানটির কমেন্টে এতো সমালোচনার ভিড়েও ভীড়েও অনেকেই আবার প্রশংসাও করেছেন তবে তুলনামূলক অনেক কম। সব কিছু মিলিয়ে গানটি যতটা না প্রশংসা কুড়িয়েছে তার চেয়ে বেশি সমালোচিত হয়েছে দর্শক মহলে। 

আঁখি আলমগীরের এই গানটি ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের ইউটিউব চ্যানেলে অবমুক্ত করা হয়। পাশাপাশি গানটি শুনতে পাওয়া যাচ্ছে ডিএমএস ওয়েবসাইট, জিপি মিউজিক এবং বাংলালিংক ভাইবে।

ডেইলি বাংলাদশ/এনএ